কলকাতা: এবার করোনা আক্রান্ত আরজিকর হাসপাতালের সুপার৷ খতিয়ে দেখা হচ্ছে সুপারের সংস্পর্শে কারা এসেছিলেন৷ এর আগে ওই হাসপাতালের এক চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন৷ সেই সময় আরও ৯ জন চিকিৎসককে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছিল৷

তার আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন হাওড়া হাসপাতালের সুপার। তাঁকে এমআর বাঙুর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছিল৷ সেই সময় তাঁর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল। সুপারের পরিবারের সদস্যদের পাঠানো হয়েছিল কোয়ারেন্টাইনে৷ পাশাপাশি তাঁর সংস্পর্শে আসা হোম কোয়ারেন্টাইনে গিয়েছিলেন জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতরের প্রায় ২০০ জন আধিকারিক।

গত ৭ মে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল করোনা হাসপাতাল হিসেবে চিহ্নিত হওয়ার পর থেকে নানা বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না। এর আগে মেডিক্যাল কলেজের জুনিয়র ডক্টর, ছাত্রছাত্রীদের একাংশ নন কোভিড বা করোনা আক্রান্ত নন, এমন রোগীদের ভর্তি করার দাবিতে আন্দোলনে নামেন। সব মিলিয়ে প্রায় প্রতিদিনই খবরের শিরোনামে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ।

এছাড়া করোনা আবহ শুরু হওয়ার পর থেকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের বেশ কয়েকজন চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হন করোনা ভাইরাসে৷ অন্যদিকে মেডিক্যাল কলেজের এক সহকারি সুপারের দ্বিতীয়বার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। রিপন স্ট্রিটের বাসিন্দা ওই সহকারী সুপার এবং আরও এক সুপার, দুজনেই করোনা পজিটিভ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তবে চিকিৎসার পর ৭ দিন নতুন করে কোনো উপসর্গ না থাকায় তাঁদের ৭ দিন পর হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়৷

সেই সময় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সুপার তথা উপাধ্যক্ষ ডক্টর ইন্দ্রনীল বিশ্বাস জানিয়েছিলেন,দ্বিতীয় বার করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা নিঃসন্দেহে ব্যতিক্রমী, তবে কি কারণ সেটা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা খতিয়ে দেখবেন।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।