হাওড়া: দীর্ঘ ৩৬ বছরের কর্মজীবনের পুরোটাই কাটিয়েছেন একই বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয়ের সঙ্গে এক বন্ধনে জড়িয়ে গেছে জীবন। তাই অবসরের পরেও বিদ্যালয়ের উন্নতিকল্পে এক লক্ষ টাকা দান করলেন গ্রামীণ হাওড়ার বাগনান-২ ব্লকের মুগকল্যাণ হাইস্কুলের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক শক্তিপদ বসু।

পদার্থবিদ্যার শিক্ষক শক্তিপদ বাবু এবছরের ২৯ শে ফেব্রুয়ারী কর্মজীবন থেকে অবসর নিয়েছেন। সম্প্রতি হাতে পেয়েছেন অবসরকালীন পাওনার অর্থ। তা থেকেই প্রাণপ্রিয় বিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যার ল্যাবরেটরি সংস্কারের জন্য ৫০ হাজার টাকা ও স্কুলের লড়াকু, মেধাবী পড়ুয়াদের বৃত্তি দিতে স্কুল কর্তৃপক্ষকে আরও ৫০ হাজার টাকা দান করলেন শক্তিপদ বসু। তিনি বৃহস্পতিবার স্কুলে এসে পরিচালন কমিটির সভাপতি পার্থ ঘোষালের হাতে এক লক্ষ টাকার চেক তুলে দেন।

উলুবেড়িয়ার লতীবপুর এলাকার বাসিন্দা শক্তিপদ বসু বলেন,”দীর্ঘদিন এই বিদ্যালয়ে পদার্থবিদ্যার শিক্ষকতা করেছি। উন্নত মানের পদার্থবিদ্যার ল্যাবরেটরি প্রয়োজন। সেটা খুব অনুভব করেছি। এর পাশাপাশি, বহু পড়ুয়াকে কেবল অর্থের কারণে উচ্চশিক্ষা থেকে বঞ্চিত থেকে যেতে দেখেছি। তা থেকেই এই পদক্ষেপ।”

বাকি পঞ্চাশ হাজার টাকা ব্যাঙ্কে ফিক্সড ডিপোজিট করে রাখা হবে বলে জানা গেছে। তা থেকে প্রাপ্ত অর্থ বিদ্যালয় থেকে প্রতিবছর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় পদার্থ বিজ্ঞানে সর্বোচ্চ নাম্বারপ্রাপ্ত দুঃস্থ পড়ুয়াকে শক্তিপদ বাবুর মা ও বাবার স্মৃতিতে বৃত্তিবাবদ তুলে দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

এতেই অবশ্য থেমে থাকতে চাননা পদার্থবিজ্ঞান পাগল এই মানুষটি। তাঁর কথায়,”স্কুল খুললে বিনা পারিশ্রমিকে ফের ক্লাস নেওয়ার ইচ্ছে রয়েছে।” আর এভাবেই অবসরের দিনগুলিতেও প্রাণপ্রিয় ছাত্রদের মাঝে হাজির থাকতে চান সকলের প্রিয় শক্তিবাবু।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।