স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: ‘জীবে প্রেম করে যেই জন, সেই জন সেবিছে ঈশ্বর’৷ বিবেকানন্দের সেই বাণীকে পাথেয় করে ৮৯ বছরে অবসরপ্রাপ্ত রেল-কর্মী মদনমোহন মহাপাত্র প্রতিবন্ধী আবাসিকদের জন্য ২ লক্ষ টাকা সাহায্য করলেন।

প্রতিবন্ধী আবাসিকদের উচ্চশিক্ষা ও বেঁচে থাকার জন্যই মূলত এই অর্থ সাহায্য অবসরপ্রাপ্ত রেলকর্মীর৷ ঘটনাটি তমলুকের নিমতৌড়ি উন্নয়ন সমিতির৷

আরও পড়ুন: চাপে পড়ে অমিতাভের বিজ্ঞাপন তুলে নিল কল্যাণ জুয়েলার্স

প্রসঙ্গত, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পাঁশকুড়ার বাসিন্দা মদনমোহন মহাপাত্র৷ গত ২০০১ সালে কর্মজীবন থেকে অবসর গ্রহণ করেন তিনি। ২০০৫ সালে তাঁর স্ত্রী পরলোক গমন করেন। তাঁদের কোনও সন্তান নেই। তাই অনেক দিন থেকেই তিনি এলাকার দরিদ্র ছাত্রছাত্রী ও মানুষের পাশে থেকে সাহার্য্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে আসছেন।

তিনি জানান, একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর পড়ে মদনমোহনবাবু নিমতৌড়ি তমলুক উন্নয়ন সমিতির প্রতিবন্ধী আবাসিকদের সম্বন্ধে জানতে পারেন। তাদের অসহায়ের কথা ভেবে সমিতির হাতে ২ লক্ষ টাকার চেক তুলে দেওয়ার কথা অনেক দিন থেকেই ভেবেছিলেন। আর সোমবার নিমতৌড়ি তমলুক উন্নয়ন সমিতির প্রেক্ষাগৃহে একটি অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সেই চেক তুলে দিলেন তাদের হাতে৷ চেকটি গ্রহণ করেন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক যোগেশ সামন্ত।

আরও পড়ুন: বিস্ফোরণে উড়ল তৃণমূল কংগ্রেস নেতার বাড়ি

এদিন মদনমোহনবাবু বলেন, ‘‘আমার স্ত্রী মারা গিয়েছেন বহুদিন হল৷ আমাদের কোনও সন্তান নেই। এরাই আমার সন্তান। এদের হাসিখুশির মধ্যে নিজের বাকি জীবনটা দরিদ্র অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাটিয়ে দিতে চাই।’’

দেখুন ভিডিও:

এর পাল্টা নিমতৌড়ি উন্নয়ন সমিতির সাধারণ সম্পাদক যোগেশ সামন্ত বলেন, ‘‘প্রতিষ্ঠানের আবাসিক প্রতিবন্ধী ভাই-বোনেদের কথা ভেবে অনেকেই নানা ভাবে সাহার্য্যের হাত বাড়িয়ে থাকেন। তেমনই মদনমোহনবাবু তাঁর জীবনের অর্জিত অর্থের কিছুটা আমাদের প্রতিষ্ঠানের হাতে তুলে দেওয়ায় আমরা ভীষণ খুশি।’’

আরও পড়ুন: বিদেশে যাওয়ার অনুমতি পেলেন কার্তি চিদাম্বরম