নয়াদিল্লি: ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০। কনিষ্ঠ বোলার হিসেবে (১৬ বছর ৩৫৯ দিন) টেস্ট ক্রিকেটে হ্যাটট্রিকধারী নাসিম শাহকে নিয়ে আলোড়ন বাইশ গজে। পাক টিন-এজ সেনসেশনও আগামীদিনে মুখিয়ে বাইশ গজে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে ফেস করতে। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিশ্বরেকর্ড গড়ে সম্প্রতি এক পাক ওয়েবসাইটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানালেন এই মুহূর্তে গ্রহের সেরা ব্যাটসম্যানের প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল তবে তাঁর মুখোমুখি হতে ভয় পান না। বরং বিষয়টাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিচ্ছেন নাসিম।

বাইশ গজে ভারত-পাক মহারণকে ‘স্পেশাল’ আখ্যা দিয়ে নাসিম জানালেন কোহলির মুখোমুখি হতে মুখিয়ে রয়েছেন তিনি। ওয়েবসাইটকে দেওয়া এক বার্তায় টিন-এজ ফাস্ট বোলিং সেনসেশন বলেছেন, ‘অবশ্যই ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ আমার কাছে সবসময় স্পেশাল। আমি আগেও বলেছি ক্রিকেটাররা এমন ম্যাচগুলোতে নায়ক এবং খলনায়কে পরিণত হয়। আমি আশা করি ভারতের বিরুদ্ধে খেলার সুযোগ আসলে আমি অনুরাগীদের নিরাশ করব না। আর বিরাট কোহলিকে নিয়ে যদি আলাদা করে বলতে হয় তাহলে বলব আমি তাঁকে শ্রদ্ধা করি কিন্তু ভয় পাই না।’

নাসিমের সংযোজন, ‘সবসময় নিজের সেরাটা বোলিং উপহার দেওয়াটা চ্যালেঞ্জের। তবে ভারতের বিরুদ্ধে যখনই খেলার সুযোগ আসুক না কেন আমি কোহলির বিরুদ্ধে নিজেকে মেলে ধরার চেষ্টা করব।’ সামগ্রিকভাবে শাহ হলেন চতুর্থ পাক বোলার যিনি আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে হ্যাটট্রিকের স্বাদ পেলেন। মহম্মদ সামি, আব্দুল রজ্জাক, ওয়াসিম আক্রামদের মতো দিকপালদের তালিকায় নিজের নাম জুড়ে নিয়েছেন কিশোর নাসিম।

গত বছর পাকিস্তানের অস্ট্রেলিয়া সফরে আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে পথ চলা শুরু হয়েছিল নাসিমের। এরপর শ্রীলঙ্কা সফরে কনিষ্ঠ ফাস্ট বোলার হিসেবে (১৬ বছর ৩০৭ দিন) পাঁচদিনের ক্রিকেটে এক ইনিংসে ৫ উইকেট ঝুলিতে নেওয়ার নজির গড়েছিলেন তিনি। সেই পাদপ্রদীপের আলোয় আসা নাসিম বিশ্বক্রিকেটের সমীহ আদায় করে নিয়েছেন ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করে।

তবে বর্তমানে আইসিসি ইভেন্ট ছাড়া যেহেতু ভারত-পাক দ্বৈরথ হওয়ার সম্ভাবনা খুব একটা নেই তাই পাক টিনএজ সেনসেশনের স্বপ্ন কবে পূরণ হয়, এখন সেটাই দেখার।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প