স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সম্প্রতি ট্রায়াল হয়েছে কলকাতা মেট্রোর। সল্টলেকের মেট্রোর নতুন লাইনের উপর দিয়ে ছুটেছে ট্রেন। পুজোতেই এই নতুন মেট্রোয় চাপা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে, এই মেট্রোতে বসেই নাকি পাওয়া যাবে বুলেট ট্রেনের স্বাদ। এমনটাই জানাচ্ছে কোচগুলির নির্মাতা সংস্থা।

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর জন্য কোচ তৈরি করছে ‘ভারত আর্থ মুভারস লিমিটেড’। বেঙ্গালুরুর এই সংস্থা কলকাতা মেট্রোতে ছ’টি কোচের ১৪টি রেক সাপ্লাই করবে। কলকাতা মেট্রো রেল কর্পোরেশনের সঙ্গে তাদের এই চুক্তি হয়েছে। জানা গিয়েছে এই সব ট্রেনের কোচগুলি হবে বুলেট ট্রেনের কোচের মতই, তবে স্টিলের বদলে ব্যবহার করা হবে আ্যালুমিনিয়াম।

সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া তথ্যে ‘ভারত আর্থ মুভারস লিমিটেড’-এর কর্ণধার ডিকে হোতা জানিয়েছেন, ২০২২-২৩-এর মধ্যে ২৪০টি কোচ তৈরির জন্য হিতাচি, কাওয়াস্কি ও মিৎসুবিশির মত সংস্থার দিকে তাকিয়ে আছে ন্যাশনাল হাই স্পিড কর্পোরেশন। দেশের সব মেট্রো কোচের ৪৫ শতাংশ তৈরি হয় এইই ‘ভারত আর্থ মুভারস লিমিটেড’ সংস্থায়।

ইতিমধ্যেই কোচ সাপ্লাই দেওয়ার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। শহরে এসে পৌঁছেছে তিনটি কোচ। সেগুলির ট্রায়াল চলছে। এমাসেই শহরে এসে পৌঁছবে চতুর্থ কোচ। ২০১৯-এর জানুয়ারির মধ্যে সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়ামের মধ্যে মেট্রো চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র।

সুতরাং কলকাতা মেট্রোতে বসেই পাওয়া যাবে বুলেট ট্রেনের স্বাদ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।