বেজিং: একটা নয়, চিনে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়ছে হাজার হাজার মসজিদ। মাত্র তিন বছরে একাধিক মসজিদ ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। উঠে আসছে এমনই এক চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট।

চিনের শিনজিয়াং প্রদেশেই শুধুমাত্র কয়েক হাজার মসজিদ ধ্বংস করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ান স্ট্র্যাটেজিক পলিসি ইনস্টিটিউট (এএসপিআই)-এর একটি রিপোর্টে এমনই দাবি করা হয়েছে।

এই এএসপিআই সরকার প্রতিষ্ঠিত এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রতিরক্ষা দফতরের অনুমোদন প্রাপ্ত থিঙ্কট্যাঙ্ক।

জানা গিয়েছে, গত তিন বছরেই অধিকাংশ মসজিদ ভাঙা হয়েছে। শহুরে এলাকা উরুমকি এবং কাশগড়েই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মসজিদ ভাঙার ঘটনা ঘটেছে।

এমনকি যেসব মসজিদ এখনও রয়েছে সেগুলির অনেকেরই চূড়া এবং গম্বুজ ভেঙে দেওয়া হয়েছে বলেও ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে।

এএসপিআইয়ের এই রিপোর্ট সত্য বলে প্রমাণিত হলে, ১৯৬০ সালে সাংস্কৃতিক বিপ্লবের জেরে চিনে যে জাতীয়বাদী ভাবাবেগের উত্থান ঘটে, তার পর থেকে এই প্রথম সেখানে মসজিদের সংখ্যা এত নীচে গিয়ে ঠেকেছে। একই সঙ্গে এও উল্লেখ করা হয়েছে যে, জিনজিয়াং প্রদেশে কোনও গির্জা এবং বুদ্ধ মন্দিরের উপর কোনও আঁচড়ও পড়েনি।

সবমিলিয়ে উইঘুর এবং তুর্কিক ভাষায় কথা বলা ১০ লক্ষের বেশি ইসলাম ধর্মাবলম্বীকে দেশের উত্তর-পশ্চিমাংশে ডিটেনশন শিবিরে বন্দি করে রাখা হয়েছে বলেও জানি গিয়েছে ওই রিপোর্টে। বলপূর্বক সেখানে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান ত্যাগ করতে বাধ্য করা হচ্ছে বলেও দাবি করা হয়েছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।