স্টাফ রিপোর্টার,বারাকপুর: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ২৮ টি গান ও ভাষ্যপাঠের সংকলনকে এক সূত্রে বেঁধে, বিরতিহীন ভাবে রবীন্দ্র সঙ্গীত প্রেমী ভক্তদের সামনে পরিবেশন করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন ৭১ জন রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী। উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহর লোকসংস্কৃতি ভবনে এভাবেই রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করলেন, আগমনী রবীন্দ্র সংগীত চর্চা কেন্দ্রের রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পীরা ।

ব্যতিক্রমী ভাবধারায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে স্মরন করল, উত্তর ২৪ পরগনার কাঁচরাপাড়ার আগমনী রবীন্দ্র সঙ্গীত চর্চা কেন্দ্রের রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পীরা। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ২৮ টি গানের সংকলনকে ও ভাষ্যপাঠকে একসূত্রে বেঁধে পরিবেশন করা হল দুই শতাধিক রবীন্দ্র সঙ্গীত প্রেমীদের সামনে ।

হালিশহর লোকসংস্কৃতি ভবনে ৭১ জন রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী একসঙ্গে একই সুরে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ২৮ টি গানের সংকলনকে একই সূত্রে বেঁধে পরিবেশন করলেন প্রায় ২ ঘণ্টা ধরে। তাঁদের এই ব্যতিক্রমী ভাবধারায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের অনুষ্ঠান এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করল রবীন্দ্র সঙ্গীত চর্চায় ।

এর আগে, ২০১৯ সালে আগমনী রবীন্দ্র সংগীত চর্চা কেন্দ্রের ২০০ জন শিল্পী একযোগে রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেছিলেন । তবে এবার ৭১ জন বিভিন্ন বয়সের পুরুষ ও মহিলা রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পীরা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ২৮ টি গান ও ভাষ্য পাঠকে এক সূত্রে বেঁধে যে ভাবে উপস্থাপন করলেন তা অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকল রবীন্দ্র ভক্তদের সামনে। এই ব্যতিক্রমী ভাবধারায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে স্মরন করে খুশি আগমনী রবীন্দ্র সংগীত চর্চা কেন্দ্রের রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পীরা। তাঁরা জানালেন, পরীক্ষা মূলক ভাবেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গানগুলোকে একই সূত্রে বেঁধে পরিবেশন করা হয়েছে। রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরকে ব্যতিক্রমী ভাবধারায় স্মরন করতে পেরে ভীষন খুশী এখানকার রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পীরা।