স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: শ্রমিক ও মালিক পক্ষের বিরোধের জেরে সাসপেনশন অফ ওয়ার্কের নোটিশ দেওয়া হল উত্তর ২৪ পরগণার ভাটপাড়ার রিলায়েন্স জুট মিলে। কর্মহীন হয়ে পড়ল প্রায় পাঁচ হাজার শ্রমিক। শনিবার দুপুরে ওই জুটমিলের শ্রমিকরা কেউ উৎপাদন প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়নি৷ তাই জুটমিলের গেটে কাজ বন্ধের নোটিশ ঝুলিয়ে দেয় কারখানা কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন- ডোমকল অগ্নিনির্বাপণ কেন্দ্রের উদ্বোধন করলেন দমকল মন্ত্রী

মালিকপক্ষ নোটিশে জানিয়ে দেয় কারখানায় কাজের পরিবেশ নেই। শ্রমিকরা উৎপাদন প্রক্রিয়ায় অংশ নিচ্ছে না। এরফলে কর্তৃপক্ষের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে। সেই কারণে এই কারখানায় অনির্দিষ্টকালের জন্য কাজ বন্ধের নোটিশ দেওয়া হল। এদিকে কারখানার শ্রমিকদের বক্তব্য, বর্তমানে কারখানার শ্রমিকদের বেতন কাঠামো অত্যন্ত কম। সাধারণ শ্রমিকদের ন্যূনতম বেতন ১৮ হাজার টাকা করতে হবে৷ এই দাবি না মানা হলে কারখানার উৎপাদন প্রক্রিয়ায় অংশ নেবে না শ্রমিকরা।

আরও পড়ুন- নব প্রজন্মের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের ভাবনা তুলে ধরার আহ্বান শুভেন্দুর

মূলত রাজ্যের বামপন্থী ও সরকার বিরোধী শ্রমিক সংগঠনগুলি একজোট হয়ে শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধির দাবি তুলেছে। সেই দাবিকেই সমর্থন জানিয়েছে ভাটপাড়ার রিলায়েন্স জুটমিলের অধিকাংশ শ্রমিকরা। এদিকে রিলায়েন্স জুটমিলের তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধির দাবি নিয়ে রাজ্য শ্রম দফতরে আগামী ১৪ এবং ১৫ মার্চ সমস্ত শ্রমিক সংগঠন ও মালিকপক্ষকে নিয়ে ত্রিপাক্ষিক বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন- নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাদ নাটকের বিশিষ্টজনরা

তার আগেই বিরোধী শ্রমিক সংগঠনের সদস্যরা শ্রমিকদের ভুল বুঝিয়ে উৎপাদন প্রক্রিয়া থেকে বিরত করেছে। এরফলে ক্ষতি হবে সাধারণ শ্রমিকদের। তাঁদের বেতন বৃদ্ধির বিষয়টি আলোচনার মাধ্যমে স্থির হবে। আপাতত মালিকপক্ষের সঙ্গে আলোচনার সম্ভাবনা নেই। এদিকে জানা গিয়েছে, এই কারখানায় শনিবার সকালের মর্নিং শিফটে শ্রমিকরা কাজে যোগ দিয়েছিল। তবে দুপুরের শিফটে সেলাই বিভাগের কেউ কাজে যোগ দেয়নি। ফলে অন্য বিভাগগুলিও অচল হয়ে পড়েছিল। ফলে এই কারখানায় উৎপাদন একেবারে বন্ধ হয়ে যায়। পরে কর্তৃপক্ষ আর্থিক ক্ষতির কারণ দেখিয়ে জুটমিলের গেটে সাসপেনশন অফ ওয়ার্কের নোটিশ জারি করে।