স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে অভিনব কায়দায় চলছিল বেআইনি কারবার। অবশেষে গ্যাং-এর মূল পাণ্ডাকে গ্রেফতার করল রিজেন্ট পার্ক থানার পুলিশ।

লালবাজার সূত্রে খবর, পুলিশের নিজস্ব সোর্স মারফত দক্ষিণ কলকাতার রিজেন্ট পার্ক থানায় একদিন খবর আসে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার নরেন্দ্রপুর এবং তার আশপাশের অঞ্চলে কয়েকজন যুবক মিলে একটা সশস্ত্র গ্যাং গড়ে তুলেছে। নানা অপরাধমূলক কাজের পাশাপাশি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্রের কারবারও চালাচ্ছে তারা। বিভিন্ন জায়গা থেকে অর্ডার নিয়ে পাচার করছে আগ্নেয়াস্ত্র, কার্তুজ।

পুলিশ গোপন সূত্রে জানতে পারে, ওই গ্যাং-এর মুল পান্ডা সঞ্জয় সরকার, বয়স ২৩। সঞ্জয়ের নাম ও ফোন নম্বরটুকু বাদে ওই গ্যাং সম্পর্কে আর বিশেষ কোনও তথ্যই ছিল না রিজেন্ট পার্ক থানার তদন্তকারী অফিসারদের হাতে। শুধু জানা গিয়েছিল, ঐ গ্যাং-এর সবাই নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রাখে একটা হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপের মাধ্যমে।

শুরু হয় প্রযুক্তি প্রহরা। যে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে গ্যাং-এর বাকিদের সঙ্গে কথা চালাত সঞ্জয়, সেটিরও সন্ধান মেলে। দেখা যায়, সেই গ্রুপে বেআইনি অস্ত্র পাচারের নানা খবর আদান-প্রদান হচ্ছে। গত ১০ সেপ্টেম্বর রাতে, ওই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই সঞ্জয়কে হাতেনাতে পাকড়াও করে রিজেন্ট পার্ক থানার পুলিশ।

সঞ্জয়ই এই গ্যাং-এর প্রধান চাঁই। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি পিস্তল ও বেশ কিছু কার্তুজ। এই গ্যাং-এর সঙ্গে যুক্ত বাকিদের খোঁজও চলছে।