কলকাতা: সরকারের ঘোষণা আর তা রূপায়নের মধ্য সময়সীমা কমাতে হবে ৷ শনিবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের বাজেট বক্তৃতা শোনার পর শিল্পপতি তথা বণিকসভা সিআইআই-এর অন্যতম কর্তা সঞ্জয় বুধিয়া এমনই অভিমত প্রকাশ করেছেন ৷ এই শিল্পপতি মনে করেন, এদেশের পাঁচ ট্রিলিয়ন অর্থনীতি গড়ে তোলার সুযোগ রয়েছে ৷ আর তা করতে গেলে ভারতকে উৎপাদন ক্ষেত্রের হাব হিসেব গড়ে তোলার যে সুযোগ রয়েছে সেটাকে কাজে লাগাতে হবে ৷

এই বাজেটে লজিস্টিক নীতি, ১০০টি নতুন বিমানবন্দর গড়া , আয়কর, কর্পোরেট ট্যাক্স, ডিভিডেন্ট ডিস্ট্রিবিউশন ইত্যাদিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে ৷ তেমনই আবার পরিকাঠামো ক্ষেত্রে নজর দেওয়ার কথা বলা হয়েছে ৷ এই সব কথা উল্লেখ করতে গিয়ে এই শিল্পপতির বক্তব্য, পরিকাঠামো ক্ষেত্রে নজর দিলে তার বহুমুখী প্রভাব পাওয়া যেতে পারে ৷

তবে শুধুমাত্র ঘোষণা করলেই হবে না তা দ্রুত রূপায়নের ব্যবস্থাও করতে হবে৷ দেখতে হবে যাতে চাহিদা তৈরি হয়৷ কারণ শিল্পেরে বিস্তারের জন্য চাহিদা বাড়ার দরকার৷ তিনি মনে করেন এই বাজেটে অর্থমন্ত্রী একটা দিশা দেখাবার চেষ্টা করেছেন৷ তাঁর আশা, শিল্পমহলের সঙ্গে সরকারের ক্রমাগত আলাপ আলোচনা চলবে ৷ পাশাপাশি ঘোষণা মতো কাজ দ্রুত রূপায়িত হওয়ার বিষয়ে নজর দেওয়ার দরকার হবে ৷

রইল পুরো সাক্ষাৎকারটি-

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।