সৌরভ দেব, জলপাইগুড়ি : সিকিমের পাহাড়ে প্রবল বর্ষণে জল বাড়ল তিস্তায়। নদীর অসংরক্ষিত এলাকায় লাল সতর্কতা জারি করলো সেচ দফতর। তিস্তানদীর দোমহনী থেকে বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী এলাকা মেখলিগঞ্জ পর্যন্ত অসংরক্ষিত এলাকায় লাল সংকেত জারি করা হয়েছে। অন্যদিকে, দোমহনি থেকে মেখলিগঞ্জ পর্যন্ত সংরক্ষিত এলাকায় হলুদ সতকর্তা জারি করা হয়েছে।
সিকিম পাহাড়ে লাগাতার বৃষ্টির ফলে তিস্তানদীতে জল বেড়েছে। জল বের করার জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে তিস্তা ব্যারেজের বেশ কয়েকটি স্লুইস গেট। ব্যারেজ থেকে ২৪২৬.৫০ কিউসেক জল ছাড়া হয়েছে। গাজোলডোবা তিস্তা ব্যারেজের গেট খুলে দেওয়ায় নদীর জল ঢুকে পড়েছে মালবাজার মহকুমার বিস্তীর্ণ এলাকা। মাল মহকুমার চাঁপাডাঙা, বাসুসুবা,দর্জিপাড়া সহ বিস্তীর্ন এলাকায় জল ঢুকে পড়ায় জলবন্দি কয়েক হাজার পরিবার। মাল সদর মহকুমাশাসক জ্যোতির্ময় তাঁতি বলেন বেশকিছু এলাকায় জল ঢুকেছে। ত্রাণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। অপরদিকে অতিরিক্ত বৃষ্টিতে জলপাইগুড়ি দোমহনীর তিস্তার বাঁধে রেনকোট হয়ে বাঁধের ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে।