পারথ: অ্যাডিলেডের হার থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে পারথে ভারতকে ১৪৬ রানে পরাজিত করে চার ম্যাচের সিরিজে ১-১ সমতা ফিরিয়েছে অস্ট্রেলিয়া৷ জয়ের জন্য শেষ ইনিংসে ভারতের দরকার ছিল ২৮৭ রান৷ টিম ইন্ডিয়া শেষ ইনিংসে গুটিয়ে যায় মাত্র ১৪০ রানে৷ ৫ উইকেটে ১১২ রানের পর থেকে খেলতে নেমে শেষ দিনে ভারতের বাকি পাঁচজন ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফেরেন মাত্র ২৮ রানের মধ্যে৷

দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেন অজিঙ্কা রাহানে ও ঋষভ পন্ত৷ দু’জনেই ৩০ রানের সংক্ষিপ্ত ইনিংস খেলেন৷ এছাড়া হনুমা বিহারী ২৮, মুরলি বিজয় ২০ ও বিরাট কোহলি ১৭ রান করেন৷ বাকিরা কেউই দু’অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি৷

আরও পড়ুন: স্পিনারদের কথা না ভেবেই বিপদ, ভুল স্বীকার কোহলির

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে তিনটি করে উইকেট নেন মিচেল স্টার্ক ও ন্যাথল লায়ন৷ দু’টি করে উইকেট পেয়েছেন জোস হ্যাজেলউড ও প্যাট কামিন্স৷ বিরাট কোহলি ম্যাচের একমাত্র শতরানকারী (প্রথম ইনিংসে ১২৩) হলেও পেসারদের অনুকূল পিচে দুই ইনিংস মিলিয়ে আটটি উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা হন লায়ন৷

পারথ টেস্টের পারফরম্যান্সের নিরিখে টেস্ট ক্রিকেটে বেশ কয়েকটি নতুন রেকর্ড তৈরি হয়৷ সেই সব পরিসংখ্যানে একঝলক চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক৷

আরও পড়ুন: পারথ টেস্টে ভারতকে হারিয়ে সিরিজে সমতা ফেরাল অজিরা

চলতি ক্যালেন্ডার বর্ষে ভারতের টেস্ট পরিসংখ্যান: চলতি বছরে দেশের বাইরে ভারতের এটি সাত নম্বর টেস্ট হার৷ কেপটাউন, সেঞ্চুরিয়ন, বার্নিংহ্যাম, লর্ডস, সাউদাম্পটন ও ওভালের পর পারথে টেস্ট হারে ভারত৷ এবছর ভারত টেস্ট জিতেছে জোহানেসবার্গ, বেঙ্গালুরু, নটিংহ্যাম, রাজকোট, হায়দরাবাদ ও অ্যাডিলেডে৷অর্থাৎ ২০১৮’য় ভারত ঘরের মাঠে তিনটি ও দেশের বাইরে তিনটি টেস্ট জিতেছে৷চলতি বছরে আর একটি মাত্র টেস্ট খেলবে ভারত৷

বিরাট টপকালেন সচিনকে: পারথের প্রথম ইনিংসে অনবদ্য সেঞ্চুরি করেন কোহলি৷ টেস্টে এটি তাঁর ২৫ তম শতরান৷ টেস্ট ক্রিকেটে ২৫টি শতরান করা দ্বিতীয় দ্রুততম ব্যাটসম্যান হলেন বিরাট৷ স্যার ডন ব্র্যাডম্যান মাত্র ৬৮ ইনিংসে ২৫টি সেঞ্চুরি করেছিলেন৷ কোহলি করলেন ১২৭ ইনিংসে৷ এই নিরিখে তিনি ছাপিয়ে গেলেন সচিন তেন্ডুলকরকে৷ ২৫টি সেঞ্চুরি করতে সচিনকে খেলতে হয়েছিল ১৩০টি টেস্ট ইনিংস৷

আরও পড়ুন: Big Breaking: সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন ভারতীয় ক্রিকেটার

শতরানের নিরিখে পারথে শচিনের আরও একটি রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেন বিরাট৷ অস্ট্রেলিয়ায় বিরাটের এটি ছ’নম্বর টেস্ট সেঞ্চুরি৷ অ্যালেস্টার কুক, ডেভিড গাওয়ার, ক্লাইভ লয়েডদের টপকে বিরাট ছুঁয়ে ফেলেন মাস্টার ব্লাস্টার তেন্ডুলকরকে৷ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে সচিন ২০ টেস্টে ৬টি সেঞ্চুরি করেন৷ বিরাট সেখানে ১০টি টেস্টেই ছ’বার তিন অঙ্কের ইনিংস খেলেন৷

লায়ন বসলেন কিংবদন্তি মুরলির পাশে: পারথের দুই ইনিংস মিলিয়ে আটটি উইকেট নেওয়া ন্যাথন লায়ন চলতি বছরে টেস্টে সর্বাধিক উইকেটশিকারিদের তালিকায় যুগ্মভাবে শীর্ষে রয়েছেন৷ তাঁর ঝুলিতে এখনই রয়েছে ৪৮টি উইকেট, যার মধ্যে ভারতের বিরুদ্ধে দু’টি টেস্টেই তিনি ১৬টি উইকেট দখল করেন৷ পারথের দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে জয়ের রাস্তা দেখিয়েছেন তিনি৷ ভারতের বিরুদ্ধে এই নিয়ে মোট সাতবার ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিলেন লায়ন৷ তিনি ছুঁয়ে ফেলেন কিংবদন্তি শ্রীলঙ্কান মুথাইয়া মুলরিধরণকে৷

আরও পড়ুন: ‘কোহলি সবচেয়ে অভদ্র ক্রিকেটার’

ইশান্তের পর এবার শামি: পারথের দ্বিতীয় ইনিংসে শামি ৫৬ রানের বিনিময়ে ৬ উইকেট নেন৷ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ভারতীয় পেসারদের মধ্যে এটি চতুর্থ সেরা বোলিং পারফরম্যান্স৷ চলতি বছরে টেস্টে শামি ৪৪টি উইকেট নিয়েছেন৷ ভারতীয়দের মধ্যে এবছর সর্বাধিক উইকেট তাঁরই৷ ২০১১ সালে ইশান্ত শর্মার পর আবার কোনও ভারতীয় পেসার একই ক্যালেন্ডার বর্ষে ৪০টির বেশি উইকেট নিলেন৷

রাহুল ছুঁলেন সানিকে: শেষ ১১টি টেস্ট ইনিংসের মধ্যে লোকেশ রাহুল বোল্ড আউট হয়েছেন ৭ বার৷ একই টেস্টের দুই ইনিংসে বোল্ড বোল্ড হওয়ার নিরিখে লোকেশ ছুঁয়ে ফেলেন সুনীল গাভাসকরকে৷ দু’জনেই তিনটি টেস্টের উভয় ইনিংসে বোল্ড আউট হয়েছেন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.