স্মার্ট ফোন ব্যবহার করেন না এমন মানুষ আজকের দিনে নেই। বিশেষ করে সাধারণ মানুষের কাছে আরও বেশি করে গুরুত্ব পেয়েছে এই স্মার্ট ফোন পরিষেবা। করোনা পরবর্তী সময়ে ওয়ার্ক ফ্রম হোমের জেরে সাধারণ মানুষকে এই ফোনের মাধ্যমে একাধিক কাজ করতে হয়েছিল। পাশপাশি চাহিদা অনুসারে লঞ্চ করা হয়েছিল কিছু ফোন। এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক নতুন লঞ্চ হওয়া realme narzo 30 pro ফোন কতটা জনপ্রিয় হল ক্রেতাদের কাছে।

 

যদিও এই মুহূর্তে বেশ কিছু কোম্পানির তরফে বাজারে ৫জি প্রযুক্তি লঞ্চ করার পরিকম্পনা করা হয়েছে।আর সেই কারণেই একাধিক কোম্পানির তরফে ইতিমধ্যে ৫জি প্রযুক্তি যুক্ত ফোন ইতিমধ্যে লঞ্চ করা হয়েছে। যার ফলে সুবিধা হয়েছে সাধারণের। মূলত অল্প দামের ফোনের জেরে গ্রাহকদের কাছে জনপ্রিয় realme। ভারত সহ আন্তর্জাতিক বাজারে যথেষ্ট জনপ্রিয় এই কোম্পানি। আর কিছুদিন আগেই ৫জি প্রযুক্তি যুক্ত realme narzo 30 pro ফোন লঞ্চ করা হয়েছিল তাদের তরফে। যদিও এই ফোন নিয়ে গ্রাহকদের মধ্যে ছিল তীব্র আকর্ষণ।

 

অন্যান্য ফোনের তুলনায় এই ফোনে রয়েছে অতিরিক্ত বেশ কিছু সুবিধা। আর তার ফলে যারা এই ফোন ব্যবহার করবেন তারা অতিরিক্ত ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন। এর আগেও realme র তরফে লঞ্চ করা হয়েছিল বেশ কিছু সিরিজ। আর এবারে সেই কারণেই মনে করা হচ্ছে সুবিধা হবে গ্রাহকদের। এই ফোনে রয়েছে দ্রুত চার্জের সুবিধা। সঙ্গে রয়েছে ৬.৫০ ইঞ্চি ডিসপ্লের সুবিধা। পাশপাশি এছাড়া এই ফোনে রয়েছে উন্নত ক্যামেরার সুবিধা। রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরার সুবিধা। এছাড়াও রয়েছে triple rear camera র সুবিধা। এই ফোনে রয়েছে ৫০০০ mah ব্যাটারির সুবিধা। সঙ্গে রয়েছে android 10 অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারের সুবিধা। অর্থাৎ গ্রাহকদের কথা ভেবেই বিশেষ প্রযুক্তির সঙ্গে বাজারে নিয়ে আসা হয়েছিল এই ফোন। আর তার ফলে সুবিধা পেয়েছে গ্রাহকেরা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.