মাদ্রিদ: রিয়াল মাদ্রিদ শেষ বার লা লিগা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ২০১৬-১৭ মরশুমে৷ গত সাত বছরে চার বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতলেও সেই একবারই তারা স্প্যানিশ লিগের খেতাব ঘরে তোলে৷ বরং লা লিগায় বার্সেলোনার ধারাবাহিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার জায়গা নেই৷ এবার বার্সা শুরুতেই পিছিয়ে পড়ায় রিয়ালের সামনে সুযোগ ছিল লা লিগায় চালকের আসনে বসে পড়ার৷ সুযোগটা যথাযথ কাজে লাগায় রিয়াল৷ ঘরের মাঠে ওসাসুনাকে ২-০ গোলে হারিয়ে স্প্যানিশ লিগের শীর্ষে উঠে আসে মাদ্রিদ৷

আরও পড়ুন: লিগ জয়ে নির্ণায়ক হতে পারে বৃহস্পতির ‘মিনি ডার্বি’

ওসাসুনার বিরুদ্ধে রিয়ালের হয়ে দুই অর্ধে দু’টি গোল করেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র ও অভিষেককারী রডরিগো৷ ম্যাচে আরও কয়েকটি গোলের সহজ সুযোগ তৈরি করেছিল তারা৷ তবে ফিনিশিং টাচ দিতে না পারায় ব্যবধান বাড়ানো সম্ভব হয়নি জিদানের প্রশিক্ষণাধীন রিয়াল মাদ্রিদের পক্ষে৷

ব্রাজিলিয়ান টিন এজার ভিনিসিয়াস গত ফেব্রুয়ারির পর থেকে এই প্রথমবার রিয়ালের হয়ে গোল পেলেন৷ স্বাভবিকভাবেই গোল খরা কাটানোর পর আবেগমথিত দেখায় তাঁকে৷ অন্যজিকে, রডরিগো রিয়ালের জার্সিতে অভিষেক ম্যাচের ২ মিনিটের মধ্যেই গোল করে চমকে দেন সকলকে৷

আরও পড়ুন: সেন্ট পিটার্সবার্গ, মিউনিখ ও লন্ডন পেল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের দায়িত্ব

৩৬ মিনিটে টনি ক্রুজের পাস থেকে বল ধরে ওসাসুনার জালে জড়িয়ে দেন ভিনিসিয়াস৷ বল গোলকিপার মার্টিনেজকে টপকে যাওয়ার আগে ওসাসুনা ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে সামান্য প্রতিহত হয়৷ ৭১ মিনিটে ভিনিসিয়াসের পরিবর্তে মাঠে নামেন রডরিগো৷ এবং মুহূর্তেই উদ্বেলিত করেন রিয়াল সমর্থকদের৷ ৭২ মিনিটে ক্যাসেমিরোর পাস থেকে গোল করেন তিনি৷ রেফারি ভিএআরের সাহায্য নিয়ে গোলের বৈধতা যাচাই করেও সিন্ধান্ত বদলাননি৷

আরও পড়ুন: শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ভারত

এই জয়েরক সুবাদে ৬ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট সংখ্যা দাঁড়াল ১৪৷ চতুর্থ স্থান থেকে এক লাফে শীর্ষে উঠে আসে মাদ্রিদ৷ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ৬ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে আপাতত৷ ৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে রয়েছে মেসির বার্সেলোনা৷