মাদ্রিদ: রিয়াল সোসিয়েদাদের বিরুদ্ধে পেনাল্টি থেকে মেসির গোলে বার্সার জয়ের খবর পেয়েই মাঠে নেমেছিলেন রামোসরা। সুতরাং, শীর্ষস্থান ধরে রাখতে জয় ছাড়া দ্বিতীয় কোনও রাস্তা খোলা ছিল না রিয়াল মাদ্রিদের। কিন্তু গত সপ্তাহে এল ক্লাসিকো জিতে লিগের মগডালে দলটা ওঠা জয়ের ছন্দ ধরে রাখতে ব্যর্থ। রিয়াল বেটিসের কাছে ১-২ গোলে হেরে লা-লিগায় ফের শীর্ষস্থান খোয়ালো লস ব্ল্যাঙ্কোসরা।

সাম্প্রতিক সময়ে মুখোমুখি সাক্ষাতে রিয়াল মাদ্রিদকে বারংবারই বিপদে ফেলেছে বেটিস। তাই এল ক্লাসিকো জিতেও চাপা শঙ্কা নিয়েই এদিন অ্যাওয়ে ম্যাচে মাঠে নেমেছিল জিদানের দল। আর সেই শঙ্কাই যেন কাল হয়ে নেমে এল লস ব্ল্যাঙ্কোসদের জন্য। ম্যাচ শেষে রিয়াল বেটিস ম্যাচকেই মরশুমের সবচেয়ে জঘন্য পারফরম্যান্স আখ্যা দিলেন কোচ জিনেদিন জিদান। ম্যাচ শেষে মাদ্রিদ বস জানালেন, ‘আমরা আজ অনেক ভুল করেছি। সবকিছুতেই আমরা পিছিয়ে ছিলাম। এটা চলতি মরশুমে আমাদের সবচেয়ে খারাপ পারফরম্যান্স।’

নবি ফেকিরের বাঁ-পায়ের জোরালো ভলি কুর্তোয়া নিজেকে দক্ষতার শীর্ষে নিয়ে গিয়ে রক্ষা না করলে ৩৫ মিনিটেই পিছিয়ে পড়ত মাদ্রিদ। যদিও কয়েক মিনিট বাদেই মাদ্রিদ রক্ষণে চাপ বজায় রেখে প্রথম গোল তুলে নেয় বেটিস। বক্সের মধ্যে পড়ে গিয়ে রামোসের বিরুদ্ধে ফাউলের অভিযোগ তুলে পেনাল্টির দাবিতে সরব হন ফেকির। ঠিক এই সময় সবার অগোচরে অরক্ষিত সিদনেই কুর্তোয়াকে বোকা বানিয়ে জোরালো ভলিতে স্কোরলাইন ১-০ করেন। যদিও প্রথমার্ধের সংযুক্তি সময়ে নায়ক থেকে খলনায়ক বনে যান সিদনেই।

নিজেদের বক্সে মার্সেলোকে ফাউল করে মাদিদকে পেনাল্টি উপহার দিয়ে বসেন ব্রাজিলিয়ান সেন্টার ব্যাক। স্পটকিক থেকে লস ব্ল্যাঙ্কোসদের সমতায় ফেরান ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেঞ্জেমা। দ্বিতীয়ার্ধে ৭০ মিনিটে পরিবর্ত ফার্ল্যান্ড মেন্ডির শট ক্রসবারে প্রতিহত হলে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয় মাদ্রিদ। সহজ সুযোগ নষ্ট করে বেটিসও। আক্রমণে ধার বাড়াতে মারিয়ানো ডায়াস ও ফেডেরিকো ভালভের্দেকে নামিয়ে দেন জিদান।

কিন্তু ম্যাচে ভাগ্য নির্ধারণ করে দেন মাদ্রিদের প্রতিপক্ষ শিবিরে পরিবর্ত টেলো। বেঞ্জেমার থেকে বল ছিনিয়ে রামোসকে পরাস্ত করে টেলোর উদ্দেশ্যে বল সাজিয়ে দেন আন্দ্রেস গুয়ার্দাদো। কুর্তোয়াকে এড়িয়ে জয়সূচক গোলটি করে বেটিসকে জয় এনে দেন টেলো। হারের ফলে ২৭ ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদের সংগ্রহে ৫৬ পয়েন্ট। দু’পয়েন্টে এগিয়ে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনা।