অমরাবতী: উজ্জ্বল মোদী শিবিরে এবার লাগতে চলেছে চন্দ্রগ্রহণ৷ জোটে না থাকার বার্তা দিলেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর চন্দ্রবাবু নাইডু৷ ফলে জানুয়ারির শেষ সপ্তাহেই দুই শরিক দলের ধাক্কা খেয়ে গেল এনডিএ শিবির৷

সম্প্রতি মহারাষ্ট্রে এনডিএ শরিক থেকে সরে দাঁড়িয়ে একলা চলোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিবসেনা৷ আগামী বিধানসভা নির্বাচনে দল একাই লড়বে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ এরপরেই ধাক্কা এল দক্ষিণের রাজ্য থেকে৷

অন্ধ্রপ্রদেশ সরকারে আছে টিডিপি ও বিজেপি জোট৷ সেই জোট ছিন্ন করার হুমকি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু৷ তিনি জানিয়েছেন, বিজেপি বন্ধুত্ব বজায় রাখতে চায় না৷ তাই কড়া সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হব৷  নাইডুর মন্তব্যে সাড়া পড়েছে বিস্তর৷ কারণ অন্ধ্রপ্রদেশকে ধরেই বিজেপি গোটা দেশের বেশিরভাগ অঞ্চলে তাদের সরকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বলে দাবি করে৷ চন্দ্রবাবুর মন্তব্যে সেই দাবিতে গ্রহণের মতো কালো দাগ ধরেছে৷

সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী নাইডুর গোঁসা কমাতে কয়েকদিন টানা আলোচনা চালিয়েছেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব৷ তাতে চিঁড়ে ভেজেনি৷ তেলেগু দেশম পার্টির নেতৃত্বকে নিজেদের দিকে ধরে রাখা যাচ্ছে না এমনই রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে দিল্লিতে৷ তারপরেই হুমকি এল খোদ মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে৷

চন্দ্রবাবু নাইডু বলেছেন, আমরা একলাই রাজ্যে ক্ষমতা দখল করতে পারি৷ বিজেপি যদি জোট স্বার্থ ধরে রাখতে না পারে তার জন্য আমরা দরজা খোলা রেখেছি৷ তারা আলাদা রাস্তা দেখে নিতে পারে৷  অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভায় ক্ষমতাসীন হল টিডিপি ও বিজেপি জোট৷ মোট ১৭৬টি আসনের মধ্যে টিডিপির আছে ১০৩টি৷ বিজেপির সদস্য মাত্র চার জন৷ আর বিরোধী ওয়াই এস আর কংগ্রেসের আছে ৬৬টি আসন৷