ক্যানবেরা:  কোরিয় উপসাগরে মার্কিন নৌ বাহিনীর পাশাপাশি চিনা ও রুশ যুদ্ধ জাহাজের উপস্থিতি৷ তারই জেরে আন্তর্জাতিক মহলের ধারণা, উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে বড়সড় অভিযানে চালাতে মরিয়া আমেরিকা৷ পরিস্থিতি সেদিকে গড়ালে মস্কো ও বেজিং কী পদক্ষেপ নেবে সে বিষয়ে বিশ্লেষণ তুঙ্গে৷

ওয়াশিটনের তরফে হুঁশিয়ারি, উত্তর কোরিয়ার যে কোনও যুদ্ধং দেহী পদক্ষেপের কড়া জবাব দিতে প্রস্তুত ইউএস মেরিন৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচির জেরে বিপদের মুখে পড়বে উত্তর অস্ট্রেলিয়া৷ সেই লক্ষ্যে মার্কিন নৌবহরকে অস্ট্রেলিয়ার উপকূলের দিকে পাঠানো হয়েছে৷ যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত আছি আমরা, জয়ের জন্য মুখিয়ে৷ এমনই জানিয়েছে মার্কিন নৌ বাহিনী

বিভিন্ন সূত্রের খবর, উত্তর কোরিয়া সরকার যে কোনও সময় পরমাণু বিস্ফোরণ ঘটাতে পারে৷ দেশের একনায়ক শাসক কিম জং উনের নির্দেশের অপেক্ষা৷ তারপরেই ষষ্ঠবারের জন্য পারমাণবিক পরীক্ষা চালাবে পিয়ং ইয়ং৷