চেন্নাই: প্রথম পর্বের ধোনিদের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে মাত্র ৭০ রানেই গুটিয়ে গিয়েছিল আরসিবির সাধের ব্যাটিং লাইন আপ। দ্বিতীয় পর্বে চেন্নাইয়ের ডেরায় গিয়ে তাদের ১৬২ রানের লক্ষ্যমাত্রা ছুঁড়ে দিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স।

টস জিতে এদিন রান তাড়া করার পথেই হাঁটেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে চোখ ধাঁধানো সেঞ্চুরির পর চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে ব্যর্থ অধিনায়ক বিরাট। ফিট হয়ে দলে ফিরে শুরুটা ভালো করলেন ডি’ভিলিয়ার্স। কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী হল না প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানের ইনিংস। ১৯ বলে ২৫ রানে ফিরলেন তিনি।

আরসিবির ব্যাটিং লাইন আপকে ভরসা জোগানোর কাজটা করে গেলেন ওপেনার পার্থিব প্যাটেল। অর্ধশতরান করে দলকে টানলেন। তাঁর ৩৭ বলে ৫৩ রানের ইনিংসে ছিল ২টি চার ও ৪টি ছয়। দ্বিতীয় উইকেটে পার্থিব-এবিডি’র ৪৮ ও তৃতীয় উইকেটে পার্থিবের সঙ্গে আকাশদীপের ৪১ রানের পার্টনারশিপ ছাড়া সুপার কিংস বোলাররা সেভাবে লম্বা হতে দিলেন না কোনও পার্টনারশিপই।

আকাশদীপ খেললেন ২০ বলে ২৪ রানের ইনিংস। স্টোওনিসের ব্যাট থেকে এল ১৩ বলে মাত্র ১৪। পার্থিব আউট হওয়ার পর শেষদিকে নেমে চালিয়ে খেললেন ইংরেজ অল-রাউন্ডার মইন আলি। মূলতে তাঁর ১৬ বলে ২৬ রানে ভর করে ধোনিদের বিরুদ্ধে ১৫০-র গন্ডি পেরোল আরসিবি। শেষমেষ নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৬১ রানে শেষ হয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের ইনিংস।

বল হাতে চেন্নাইয়ের হয়ে এদিন দু’টি করে উইকেট পান দীপক চাহার, রবীন্দ্র জাদেজা ও ডোয়েন ব্র্যাভো। একটি উইকেট পান ইমরান তাহির। চলতি আইপিএলে অষ্টম জয় পেতে ১৬২ রানের লক্ষ্যমাত্রা ইয়েলো ব্রিগেডের সামনে। অন্যদিকে প্রথম পর্বে হারের বদলা নিতে কেমন পারফর্ম করেন স্টেইন সমৃদ্ধ কোহলির বোলাররা, এখন সেটাই দেখার।