নয়াদিল্লি: নয়া ঋণনীতি ঘোষণা রিজার্ভ ব্যাংকের৷ সুদের হার ০.২৫ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নিল আরবিআই৷ এই নিয়ে টানা তিনবার কমল রেপো রেট৷ বৃহস্পতিবারের ঘোষণার পর রেপো রেট দাঁড়াল ৫.৭৫ শতাংশে৷ যা নয় বছরের সর্বনিম্ন বলে জানাচ্ছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা৷

বৃহস্পতিবার সকালে এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে আরবিআইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, রেপো রেট ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমানো হল৷ আগে রেপো রেটের হার ছিল ৬ শতাংশ৷ তা কমে হল ৫.৭৫ শতাংশ৷ রেপো রেট কমে যাওয়ার অর্থ সুদের হার কমে যাওয়া৷ এতে সুবিধা ও অসুবিধা দুই আছে৷

আরবিআইয়ের এই সিদ্ধান্তের পর ব্যাংকগুলি সুদের হার কমিয়ে দেবে৷ এর ফলে যারা বাড়ি, গাড়ি বা অন্যান্য কারণে ঋণ নিয়েছেন তারা খুশি৷ কারণ তাদের ঋণের পরিমাণ কমবে৷ উল্টোদিকে স্থায়ী আমানতে সুদের হার কমে যাওয়ায় ভোগান্তি বাড়বে আমানতকারীদের৷

দ্বিতীয় মোদী সরকারের শুরুতেই সুদের হার কমাল আরবিআই৷ শীর্ষ ব্যাংকের গভর্নর শক্তিকান্ত দাসের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের মানিটরি পলিসি কমিটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ তবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সোমবার থেকে টানা বৈঠক চলে৷ সকলেই ওই বৈঠকে একযোগে রেপো রেট কমানোর পক্ষে সায় দেয়৷

উল্লেখ্য, ঝিমিয়ে পড়া অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে লোকসভা ভোট শুরুর সাতদিন আগে দেশের শীর্ষ ব্যাংক ২৫ বেসিস পয়েন্ট বা .২৫ শতাংশ রেপো রেট কমায়৷ যার ফলে সুদের হার কমে গিয়ে দাঁড়ায় ৬ শতাংশে। টানা তিনদিন আরবিআই-এর অর্থনৈতিক নীতি নির্ধারণ কমিটির বৈঠক করে৷ তারপরে ৪ এপ্রিল কমিটি এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে বলে জানান রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস। তবে রিভার্স রেপো রেট অপরিবর্তিত রয়েছে।

ফেব্রুয়ারিতে এর ঠিক আগের নীতি নির্ধারণ কমিটির বৈঠক আরবিআই ২৫ বেসিস পয়েন্ট বা .২৫ শতাংশ কমিয়েছিল ফলে তখন রেপো রেট হয়েছিল ৬.২৫ শতাংশ৷ শক্তিকান্ত দাস নেতৃত্বাধীন এই পরপর দুটি দ্বিমাসিক কমিটি বৈঠকে রেপো রেট কমা এক দিক দিয়ে নজিরবিহীন ঘটনা৷