নয়াদিল্লিঃ  খুচরো পয়সা নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তির শেষ নেই। ছোট এক টাকার কয়েন চলবে, না চলবে না তা নিয়ে একটা ধোঁয়াশা রয়েছে। আর সেই সমস্যা কাটাতে ফের একমাত্র উদ্যোগী হল রিজার্ভ ব্যাংক। দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তরফে ইতিমধ্যে সাধারণ মানুষকে এই বিষয়ে অবগত করে প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

যেখানে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ছোট বড় সবধরণের কয়েন চলবে। কোনটাই বাতিল করা হয়নি। শুধু তাই নয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তরফে আরও জানানো হয়েছে, দেশের অর্থনীতি, সমাজ এবং সংস্কৃতির উপর নির্ভর করে নানা আকারের কয়েন বা খুচরো পয়সা সম্প্রতি এনেছে রিজার্ভ ব্যাংক। আকারে, নকশায় এবং ভঙ্গিমায় সেগুলি আগের কয়েনগুলির তুলনায় আলাদা। ৫০ পয়সা, ১, ২, ৫ এবং ১০ টাকার কয়েনগুলিতে অভিনবত্ব আছে।

রিজার্ভ ব্যাংকের তরফে জানানো হয়েছে যে, দেশের বিভিন্ন জায়গায় নানা আকারের সেই কয়েনগুলি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। কিছু ব্যবসায়ী কয়েন নিতে অস্বীকার করছে। নকল মুদ্রা হিসেবে অনেকেই ভ্রান্ত ধারণা তৈরি করছেন, এমনটাই মত শীর্ষ ব্যাংকের। যার ফলে সাধারণ মানুষ সমস্যার মধ্যে পড়ছে। আর সেই সমস্যা কাটাতেই উদ্যোগী রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া। শীর্ষ ব্যাংকের আবেদন, নতুন ধাঁচের ওই কয়েনগুলি অবশ্যই বৈধ। তা যেন কোনওভাবেই প্রত্যাখ্যান না করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন আগে এই বিষয়ে আরও একটি বিজ্ঞপ্তি দেয় রিজাভঁ ব্যাংক। যেখানে বলা হয়, বিভিন্ন সময়ে নানা বিষয়ের উপর ভিত্তি করে মুদ্রা তৈরি করা হয়৷ তারপর তা বাজারে ছাড়া হয়৷ নতুন মুদ্রা বেশ কিছুদিন পুরনো হয়ে গেলে তা নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়৷ বিভিন্ন অঞ্চলে সেই মুদ্রার লেনদেন বন্ধ হয়ে যায়৷ ফলে তৈরি হয় সংকট৷ সমস্যা সমাধানে দেশবাসীর কাছে আবেদন জানায় রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া৷ অনেক সময় গ্রাহকরা বাতিল ভেবে মুদ্রা নিয়ে ব্যাংকে জমা দিতে গেলে তা নিতে অস্বীকার করে ব্যংকগুলি৷ বিপদে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে৷ রিজার্ভ ব্যাংকের নির্দেশ মুদ্রা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ প্রত্যাখ্যান করতে পারবে না৷ কিন্তু এরপরেও ব্যবসায়ী কিংবা সাধারণ মানুষের একাংশের মধ্যে কয়েন নিয়ে একটা ধোঁয়াশা রয়েই গিয়েছে। আর তা কাটাতে ফের বিজ্ঞপ্তি দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক।