নয়াদিল্লি: অযোধ্যা মামলায় আদালতের মধ্যস্থতাকারী হয়েও রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি রবিশঙ্করকে। বুধবার রাম মন্দিরের ভূমিপুজো। প্রায় ১৩৫ বছরের ইতিহাসে নতুন অধ্যায়ের সূচনা। ঐতিহাসিক এই দিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী স্বয়ং উপস্থিত থাকছেন অযোধ্যায়।

বিজেপি ও আরএসএস-এর শীর্ষনেতারাও হাজির অযোধ্যায়। এই মামলায় আদালতের নিযুক্ত অন্যতম মধ্যস্থতাকারী শ্রী শ্রী রবিশঙ্কর। তাঁকেই ডাকা হয়নি ভূমি পুজোর অনুষ্ঠানে।

দশকের পর দশক ধরে চলেছে অযোধ্যা জমি মামলা। মন্দির না মসজিদ? এই বিতর্কেই কেটে গিয়েছে বছরের পর বছর।

শেষমেশ অযোধ্যার বিতর্কিত জমি বিবাদের নিষ্পত্তি করতে ২০১৯ সালে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ৫ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ তৈরি করেন। একইসঙ্গে বিবাদ মেটাতে তৈরি করা হয় ৩ সদস্যের মধ্যস্থতাকারী প্যানেল।

মধ্যস্থতাকারী সেই প্যানেলের অন্যতম সদস্য ছিলেন শ্রী শ্রী রবিশঙ্কর। অথচ রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর দিনে সেই স্বঘোষিত হিন্দুগুরুকেই আমন্ত্রণ পাঠানো হল না।

আমন্ত্রণপত্র যে তিনি পাননি তা স্পষ্ট করে জানিয়েও দিয়েছেন রবিশঙ্কর। তিনি জানান, তাঁকে আমন্ত্রণ জানানো নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে। শ্রীরাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্টের তরফে ভূমি পুজোয় থাকার ব্যাপারে তাঁকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।