কিংস্টোন: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের দলে জায়গা হয়নি রবিচন্দ্রন অশ্বিনের৷ ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে ঝকঝকে রেকর্ড সত্ত্বেও অশ্বিনের প্রথম একাদশ থেকে বাদ পড়া নিয়ে বিতর্কও তৈরি হয়৷ টিম ম্যানেজমেন্ট উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে না-চাইলে অশ্বিনের দ্বিতীয় টেস্টের দলে ঢোকাও অনিশ্চিত৷ তবে জামাইকা টেস্টের প্রথম একাদশে সুযোগ পেলে রবিচন্দ্রন অশ্বিন ছুঁয়ে ফেলতে পারেন কিংবদন্তি মুথাইয়া মুরলিধরণের অনবদ্য একটি রেকর্ড৷

৬৫টি টেস্টে অশ্বিন এখনও পর্যন্ত ৩৪২টি উইকেট সংগ্রহ করেছেন৷ অর্থাৎ, ৩৫০টি টেস্ট উইকেটের মাইলস্টোনে পৌঁছতে তাঁর প্রয়োজন আরও ৮টি উইকেট৷ কিংস্টোনে মাঠে নেমে অশ্বিন অন্তত ৮টি উইকেট দখল করলে ম্যাচের নিরিখে দ্রুততম বোলার হিসাবে তিনি ৩৫০ টেস্ট উইকেটের মাইলস্টোনে পৌঁছে যাবেন৷ যদিও এককভাবে নয়, তাঁকে যুগ্মভাবে এই রেকর্ড ভাগ করে নিতে হবে মুরলিধরণের সঙ্গে৷ মুরলিও ৬৬টি টেস্টে ৩৫০ উইকেট দখল করেছিলেন৷

আরও পড়ুন: ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন রহস্য স্পিনার

অশ্বিনের পাশাপাশি ব্যক্তিগত মাইল ফলক স্থাপণের সুযোগ থাকছে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির সামনেও৷ কিংস্টোনের দুই ইনিংসে অন্তত একটি সেঞ্চুরি করতে পারলেই কোহলি ছুঁয়ে ফেলবেন ক্যাপ্টেন হিসাবে রিকি পন্টিংয়ের ১৯টি শতরান করার রেকর্ড৷

এপর্যন্ত ৭৮টি টেস্ট মোট ২৫টি সেঞ্চুরি করেছেন বিরাট কোহলি৷ তার মধ্যে ১৮টি টেস্ট সেঞ্চুরি করেছেন ক্যাপ্টেন হিসাবে৷ রিকি পন্টিং তাঁর ৪১টি টেস্ট শতরানের মধ্যে ১৯টি করেছিলেন অস্ট্রেলিয়া দলকে নেতৃত্ব দিতে নেমে৷ অর্থাৎ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে শেষ টেস্টে ১টি সেঞ্চুরি করলেই কোহলি ধরে ফেলবেন পন্টিংকে৷ দুই ইনিংসে শতরান করলে পন্টিংয়ের রেকর্ড টপকে যাবেন ভারত অধিনায়ক৷

আরও পড়ুন: অ্যাশেজ থেকে বাদ পড়লেন ভুলের পাহাড়ে চড়া দুই আম্পায়ার

দিও ক্যাপ্টেন হিসাবে সব থেকে বেশি টেস্ট সেঞ্চুরি করার রেকর্ড রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন অধিনায়ক গ্রেম স্মিথের দখলে৷ তিনি প্রোটিয়া দলকে নেতৃত্ব দিতে নেমে মোট ২৫টি টেস্ট সেঞ্চুরি করেছেন৷ রিকি পন্টিং রয়েছেন সেই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে৷ কোহলি আপাতত তিন নম্বরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন৷

ব্যক্তিগত মাইলস্টোনের সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন ভারতের নির্ভরযোগ্য অল-রাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজাও৷ শেষ টেস্টে অন্তত ৬টি উইকেট নিতে পারলে টেস্ট ক্রিকেটে ২০০ উইকেটের মাইল ফলক ছুঁয়ে ফেলবেন তিনি৷ সেক্ষেত্রে দশম ভারতীয় হিসাবে টেস্ট ক্রিকেটে ২০০ উইকেট ক্লাবের সদস্য হবেন তিনি৷ রচিচন্দ্রন অশ্বিনের পর তিনি ভারতের দ্বিতীয় দ্রুততম বোলার হিসাবে এমন কৃতিত্ব অর্জন করবেন৷