অ্যান্টিগা: বিরাটের পছন্দকে মান্যতা দিয়ে টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচ হিসেবে রবি শাস্ত্রীর নামে সিলমোহর দিয়েছে ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি(সিএসি)৷ শুক্রবার মুম্বইয়ে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সদর দফতরে বিরাট-রোহিতদের ‘হেডস্যার’ বেছে নেয় সিএসি’র তিন সদস্য কপিল দেব, অংশুমান গায়কোয়াড় ও শান্তা রঙ্গস্বামী৷

দ্বিতীয়বার টিম ইন্ডিয়ার কোচের দায়িত্ব পাওয়ার পর শনিবার বিসিসিআই টিভি-কে দেওয়া সাক্ষাতকারে শাস্ত্রী বলেন, ‘প্রথমেই আমি ধন্যবাদ দেব ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটির তিন সদস্য কপিল, অংশু ও শান্তাকে৷ আগামী ২৬ মাস ওরা আমার উপর আস্থা রেখেছে৷ ভারতীয় দলের অংশ হতে পারাটা আমার কাছে গর্বের ও সম্মানের৷’

ভারতীয় দলের প্রধান কোচ পদপ্রার্থী পাঁচ জনের ইন্টারভিউ নেওয়ার পর শাস্ত্রীর নামে সিলমোহর দেয় তিন সদসের ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি৷ জাতীয় নির্বাচক কমিটির প্রধান এমএসকে প্রসাদের উপস্থিতিতে বিরাট কোহলিদের পরবর্তী কোচ বেছে নেন কপিল-অংশুমানরা৷ বিসিসিআই হেড-কোয়ার্টার মুম্বইয়ে ক্রিকেট সেন্টারে প্রাক্তন নিউজিল্যান্ড ও কেনিয়ার কোচ মাইক হেসেন এবং টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ফিল্ডিং কোচ তথা আইপিএলে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের দায়িত্বে থাকা রবিন সিং এবং ২০০৭ টি-২০ বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় দলের কোচ লালচাঁদ রাজপুতের ইন্টারভিউ নেয় সিএসি৷ আর অ্যান্টিগা থেকে শাস্ত্রী এবং অস্ট্রেলিয়া থেকে স্কাইপিতে ইন্টারভিউ দেন টম মুডি’৷ ছ’জনের বাছাই তালিকায় থাকলেও শুক্রবার ইন্টারভিউ শুরুর আগে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে টিম ইন্ডিয়ার কোচের রেস থেকে সরে দাঁড়ান টি-২০ বিশ্বকাপ জয়ী প্রাক্তন ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোচ ফিল সিমন্স৷

ইন্টারভিউ নেওয়ার পর শাস্ত্রীকেই আগামী ২৬ মাসের জন্য বিরাট-রোহিতদের ‘হেডস্যার’ হিসেবে শাস্ত্রীর নাম সাংবাদিক বৈঠকে ঘোষণা করে সিএসি’র তিন সদস্য৷ এ প্রসঙ্গে শাস্ত্রী বলেন, ‘যে কারণে আমাকে রেখে দেওয়া হয়েছে, আমি তার মর্যাদা দিতে চাই৷ আমি এমনটা একটা টিম রেখে যেতে চাই, যা বিশ্বের কম দলই থাকবে৷’

২০২১-এর নভেম্বর পর্যন্ত প্রধান কোচের দায়িত্ব সামলাবেন শাস্ত্রী৷ এর মধ্যে বড় ইভেন্ট আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টি-২০ বিশ্বকাপ৷ পরের বছর অর্থাৎ ২০২১-এ ভারতের মাটিতে টি-২০ বিশ্বকাপ৷ এই সময় পর্যন্ত ‘মেন ইন ব্লু’র প্রধান কোচ থাকবেন শাস্ত্রী৷ ক্যারিবিয়ান সফরের শেষে অর্থাৎ ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ দিয়ে টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচ হিসেবে দ্বিতীয় অধ্যায় শুরু করবেন শাস্ত্রী৷

২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পরই অনিল কুম্বলের উত্তরসূরি হিসেবে প্রধান কোচের দায়িত্ব নেওয়া শাস্ত্রী নিজের দল সম্পর্কে বলেন, ‘শেষ চার-পাঁচ বছর দলের ফিল্ডিং দারুণ উন্নতি করেছে৷ এই মুহূর্তে ভারত বিশ্বের সেরা ফিল্ডিং সাইড৷’ সোমবার শাস্ত্রী’র সহকারীদের বেছে নেয়ে জাতীয় নির্বাচক কমিটি৷