মুম্বই: ফের বিরাট-রোহিতদের ‘হেডস্যার’ হিসেবে দেখা যেতে পারে রবি শাস্ত্রীকে! ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি’র সদস্যদের বিদেশি কোচে আগ্রহ না-থাকায় টিম ইন্ডিয়ার কোচ হিসেবে ফেভারিটের তালিকায় রয়েছেন শাস্ত্রী৷ মঙ্গলবার সংবাদসংস্থা আইএএনএস-কে এমনটাই জানিয়েছেন ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি’র এক সদস্য৷

সৌরভ-সচিন-লক্ষ্ণণ পরবর্তী ক্রিকেট অ্যাডভাইজরি কমিটি’র দায়িত্ব দেওয়া হয় কপিল দেব, অংশুমান গায়কোয়াড় ও শান্তা রঙ্গস্বামীকে৷ মঙ্গলবার সিএসি-র এক সদস্য বলেন, ‘বিদেশি কোচ নিয়োগের ব্যাপারে আমরা বিশেষ আগ্রহী নই। যদি না গ্যারি কার্স্টেনের মতো কেউ আবেদন করে৷ তবে আমরা ভারতীয় কোচকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি। দেশীয় কোচের অধীনে এই মুহূর্তে ভারতীয় দল ভালো খেলছে।’ অর্থাৎ শেষ মুহূর্তে কোনও অঘটন না-ঘটলে, শাস্ত্রীই ফেরে টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচের দায়িত্ব পেতে চলেছেন৷

বিশ্বকাপের পরই শাস্ত্রী-সহ সহকারী কোচের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়৷ কিন্তু তড়িঘড়ি কাউকে দায়িত্ব দেওয়া সম্ভব নয় বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর পর্যন্ত শাস্ত্রী ও তাঁর সহকারীদের হাতেই বিরাটদের কোচের দায়িত্ব রেখে দেয় বোর্ড৷ অর্থাৎ ক্যারিবিয়ান সফরের পরেই বিরাটদের নতুন কোচ ঘোষণা করবে বিসিসিআই৷ ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পরই অনিল কুম্বলের উত্তরসূরি হিসেবে প্রধান কোচের দায়িত্ব নেন শাস্ত্রী৷ কিন্তু শাস্ত্রীর কোচিংয়ে সদ্যসমাপ্ত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে থেমে যায় ভারতের দৌড়৷ তবুও শাস্ত্রীর হয়েই তদবীর করেন ক্যাপ্টেন কোহলি৷

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য বিমান ধরার আগে বিরাট বলেন, ‘তাঁর সঙ্গে শাস্ত্রীর বোঝাপড়া ভালো।’ অর্থাৎ কোচ হিসেবে শাস্ত্রীর প্রতি তাঁর সমর্থনের কথা জানিয়ে দেন ক্যাপ্টেন কোহলি৷ সম্প্রতি কলকাতায় এসে সিএসি কমিটির অন্যতম সদস্য কপিল বলেন, কোহালির বক্তব্যকেও গুরুত্ব দেওয়া উচিত। ভারতীয় দলের কোচ হওয়ার জন্য যাঁরা আবেদন করেছেন, তাঁদের সাক্ষাৎকার নেওয়ার দিনক্ষণ এখনও জানায়নি বোর্ড। চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে সাক্ষাৎকার কোচ পদপ্রার্থীদের নেওয়া হবে তাঁদের৷ প্রধান কোচের পাশাপাশি টিম ইন্ডিয়ার বোলিং ও ফিল্ডিং কোচও বেছে নেওয়া হবে৷