মুম্বই: দেশে ‌ করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য ইতিমধ্যেই রতন টাটা যিনি টাটা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান তথা টাটা সন্সের চেয়ারম্যান এমেরিটাস দুইয়ের পক্ষ থেকে মোট ১৫০০ কোটি টাকা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। এবার এই মহান শিল্পপতি এগিয়ে এলেন তাদের গোষ্ঠী লাক্সারি তাজ হোটেলকে খুলে দিলেন করোনার বিরুদ্ধে লড়তে থাকা ডাক্তারদের জন্য।

এর আগে প্রথমেই জানানো হয়েছিল, টাটা ট্রাস্টের‌ দায়বদ্ধতার ৫০০কোটি টাকা গোটা সমাজের প্রতিটি কোণের আক্রান্তদের জন্য। তহবিলে টাকা ব্যবহার করা হবে যেমন একদিকে সামনে থেকে লড়াই করা স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষার জন্য পাশাপাশি ব্যবহার করা হবে টেস্টিং কিটস, আক্রান্ত রোগীদের মডিউলার মেডিকেল ফ্যাসিলিটির জন্য এবং স্বাস্থ্য কর্মী ও সাধারন মানুষদের এই বিষয়ে সচেতন করতে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে বিবৃতিতে জানিয়েছিল।

কিন্তু যা কঠিন পরিস্থিতি তাতে আরো বেশি অর্থের প্রয়োজন অনুভব করলেন দেশের এই শিল্পগোষ্ঠী। ফলে তারপর টাটা সন্স এর পক্ষ থেকে আরও ১০০০ কোটি টাকা দেওয়ার কথা জানালো। এর ফলে এই শিল্পগোষ্ঠী ১৫০০ কোটি টাকা নিয়ে এগিয়ে এল মারণ রোগ মোকাবিলায়।

তখন টাটা সন্সের চেয়ারম্যান এন চন্দ্রশেকরন জানিয়েছিলেন, এই শিল্প গোষ্ঠী প্রয়োজনীয় ভেন্টিলেটর নিয়ে আসার ব্যবস্থা করছে এবং ভারতে যাতে দ্রুত উৎপাদন করা যায় সেদিকেও নজর দিয়েছে। বর্তমানে ভারত এবং বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে করোনা ভাইরাসের প্রভাব উদ্বেগজনক। এইজন্য তাদের কাজ করার একান্ত প্রয়োজন বলে বিবৃতিতে তিনি জানিয়ে দেেন।

এই অতিরিক্ত ১০০০ কোটি টাকা সহায়তার জন্য ঘোষণা করার পর চন্দ্রশেখরন জানিয়েছিলেন,তারা টাটা ট্রাস্টের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করবেন এবং তাদের এমেরিটাস চেয়ারম্যান এই উদ্যোগকে সর্বতোভাবে সমর্থন করছেন। একসঙ্গে কাজ করার ফলে এই শিল্পগোষ্ঠীর দক্ষতা কাজে লাগানো যাবে।
এবার রতন টাটা কোবালায় তাদের তাজ হোটেল, বান্দ্রায় তাজ ল্যান্ড এন্ড এবং কাফে প্যারেডে হোটেল প্রেসিডেন্ট ইন – এর ঘর গুলি খুলে দিলেন করোনার বিরুদ্ধে কর্মরত বম্বে মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের (বিএমসি) ডাক্তারদের জন্য। এই খবরটি শেয়ার করেছেন এক্স বিগ বস কনটেস্ট্যান্ট বিন্দু দারা সিং টুইট করে।

এর আগে অবশ্য আরপিজি এন্টারপ্রাইজের চেয়ারম্যান হর্ষ গোয়েঙ্কাকে টুইট করে প্রশংসা করতে দেখা গিয়েছিল তাজ গ্রুপ হোটেলকে কারণ তারা মুম্বাইয়ের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে করোনা মোকাবেলায় কর্মরত
ডাক্তারদের জন্য বিনামূল্যে খাবার পাঠাচ্ছিলেন বলে। ওই টুইটে সেদিন তিনি সে খাবারের ছবি শেয়ার করে এই শিল্পগোষ্ঠীর মানবিকতার জন্য প্রশংসা করেছিলেন।

দেশে এবং বিদেশের একাধিক সংবাদমাধ্যমে টানা দু'দশক ধরে কাজ করেছেন । বাংলাদেশ থেকে মুখোমুখি নবনীতা চৌধুরী I