স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: এখনও সমাজে উপকারী অচেনা বন্ধু রয়েছে৷ তারই একটি নজির গড়ল জলপাইগুড়ি শহর৷ এক যুবকের ফেলে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ ফাইল পুলিশের হাতে তুলে দিলেন এলাকারই অন্য এক যুবক, নাম রাসু দে৷ শহরের এক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন তিনি৷

আরও পড়ুন: নজরুল ইসলামের নাম উল্লেখ করে ‘বেনজির’ অমিত

শুক্রবার ওই রাস্তা দিয়েই রাসুবাবু নিজের কাজে যাচ্ছিলেন৷ কিন্তু তিনি জানান, রাস্তার এক পাশে একটি ফাইল পড়ে থাকতে তিনি দেখেন৷ তাঁর মনে সন্দেহ জাগতে ফাইলটি খুলে দেখেন৷ ফাইলটির মধ্যে এক যুবকের শিক্ষা সংক্রান্ত কাগজপত্র যেমন অ্যাডমিট কার্ড, কাস্ট সার্টিফিকেট, এটিএম কার্ড, সেই কার্ডের পিন নম্বর সহ একাধিক প্রয়োজনীয় তথ্য ছিল৷ কিন্তু এই গুরুত্বপূর্ণ ফাইলটি কিভাবে কার হাতে পৌঁছে দেওয়া যায় তা বুঝে উঠতে পারছিলেন না ওই যুবক৷

আরও পড়ুন: ‘বাতেলা’ দিয়ে বাজার গরম করছে বিজেপি, মন্তব্য অধীরের

পরে সাংবাদমাধ্যমের সহায়তায় স্থানীয় কোতোয়ালী থানায় রাসুবাবু যোগাযোগ করেন৷ ঘটনা বিস্তারিত জানিয়ে পুলিশের হাতে সেই ফাইলটি তুলে দেন রাসু দে৷ পুলিশ ফাইলটি খুলে জানতে পারে সদর ব্লকের বাহাদুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কাজি পাড়ার বাসিন্দা শুভজিত রায়৷ এই জরুরি ফাইলটি তাঁরই। সঙ্গে সঙ্গে একটি ফোন নম্বর জোগাড় করে থানা থেকে ওই যুবককে খবর দেওয়া হয়। এরপর পুলিশ সঠিক যুবকের হাতে ওই ফাইলটি তুলে দেয় বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে, রাসু দে-কে থানার কর্তব্যরত পুলিশ অফিসার ধন্যবাদ জানান। এই প্রসঙ্গে রাসু বাবু বলেন, ‘‘আমি প্রয়োজনীয় নথি সঠিক ব্যক্তির কাছে পৌঁছে দিতে পেরে খুবই খুশি হয়েছি।’’

আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবসে শিয়ালদহ, হাওড়া স্টেশন চমকে দেবে আপনাকে