নয়াদিল্লি: বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রত্যাশামাফিক ফল করতে ব্যর্থ দল। একটিও ম্যাচ না জিতে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে গুলবাদিন নাইবের দল। বিশ্বকাপের আগে ঘটা করে আসঘর আফগানকে সরিয়ে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল গুলবাদিনকে। বিশ্বকাপে ব্যর্থ হতেই ফের অধিনায়ক বদল আফগান ক্রিকেটে। আফগানিস্তানের নতুন ওয়ান-ডে অধিনায়ক হলেন লেগ-স্পিনার রশিদ খান। পাশাপাশি রহমত

প্রাক্তন অধিনায়ক আসঘর আফগানকে দেওয়া হয়েছে রশিদের ডেপুটির দায়িত্ব। শুক্রবার নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করা হল আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে। বিশ্বকাপের আগে বিশেষ কোনও কারণ ছাড়াই প্রাক্তন অধিনায়ক আসঘরকে সরিয়ে গুলবাদিনকে অধিনায়ক ঘোষণা করায় কম জলঘোলা হয়নি আফগান ক্রিকেটে। গুলবাদিন স্বয়ং জানিয়েছিলেন খাতায়-কলমে তিনি যতই অধিনায়ক হোন না কেন আসঘরই তাঁর অধিনায়ক।

আসঘর আফগানকে সরিয়ে গুলবাদিনকে অধিনায়ক ঘোষণা করার সিদ্ধান্তটি ভালো চোখে গ্রহণ করেণনি মহম্মদ নবির মত দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা। অনুরাগীদেরও সমালোচনার শিকার হতে হয় আফগান ক্রিকেট বোর্ডকে। তাই বিশ্বকাপে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল চূড়ান্ত ব্যর্থ হওয়ায় সময় নষ্ট করল না সেদেশের ক্রিকেট বোর্ড। দায়িত্ব দেওয়া হল তরুণ রশিদকে। পাশাপাশি কোনও টেস্টে অধিনায়কত্ব করার আগেই টেস্ট ক্যাপ্টেনসি থেকে সরানো হল রহমত শাহকে।

বদলে নেতা করা হল রশিদকেই। এর ফলে তিনটি ফর্ম্যাটের ক্রিকেটেই আফগানিস্তানের নতুন অধিনায়ক হলেন বছর কুড়ির এই ক্রিকেটার। মাসকয়েক আগে ঘটা করে তিন ফর্ম্যাটে তিন অধিনায়ক ঘোষণা করা হয়েছিল আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে।

দায়িত্ব নেওয়ার পর জাতীয় দলকে ১২টি ওয়ান-ডে ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন নাইব। যার মধ্যে মাত্র দু’টিতে জয় পেয়েছে আফগানরা। বিশ্বকাপে ৯টি ম্যাচের প্রত্যেকটিতে পরাজয় স্বীকার করে লিগ টেবিলে অন্তিমস্থানে শেষ করে তারা। উলটোদিকে এখন অবধি জাতীয় দলকে ৪টি ওয়ান-ডে ম্যাচে নেতৃত্ব প্রদান করেছেন রশিদ। জয় ১টি ম্যাচে, হার ৩টিতে। ফুলটাইম অধিনায়ক হিসেবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে একটিমাত্র টেস্ট ম্যাচ দিয়ে সেপ্টেম্বরে অভিযান শুরু হচ্ছে রশিদের।

এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তরুণ লেগ-স্পিনারের নেতৃত্বে ৩টি টি২০ ও ৩টি ওয়ান ডে ম্যাচে অংশ নেবে আফগানরা।