তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: বন্যপ্রাণী নিয়ে মানুষের সচেতনতা বাড়ছে। ফের প্রমাণ হল বাঁকুড়ার ইন্দাসে। শনিবার বিকেলে এখানকার মহেশপুর গ্রামের পুকুর পাড়ে অসুস্থ একটি পাখি দেখতে পান স্থানীয়রা। তারাই সেটিকে উদ্ধার করে গ্রামে নিয়ে আসেন।

গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, প্রথমে অসুস্থ ওই পাখিটিকে দেখে অনেকেই বিরল প্রজাতির কোন ‘অস্ট্রেলিয়ন’ পাখি ভেবেছিলেন। সেই মতো গ্রামবাসীরা খবর দেয় ইন্দাসের বিডিও সুচেতনা দাসকে। তিনি দেরি না করে পাত্রসায়ের বনদফতরে খবর দেন। বনাধিকারীক সৌরভ কর নিজে ওই গ্রামে গিয়ে শনিবার রাতেই অসুস্থ পাখিটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন৷

আরও পড়ুন: আমেরিকার আপত্তি সত্ত্বেও এস-৪০০ মিসাইল কিনবে ভারত

পরে পক্ষী বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে জানা যায় ওই পাখিটি কোন বিরল প্রজাতির নয়। এটি আসলে কালো ডানার চিল। ভারতের অন্যান্য রাজ্যের সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম, বাঁকুড়া ও বর্ধমান সীমান্তে দক্ষিণ দামোদর এলাকাতেও প্রচুর দেখতে পাওয়া যায়। এই পাখিটির ইংরেজী নাম Black wing kite৷

পাখি উদ্ধারের পর বিডিও সুচেতনা জানান, মহেশপুর গ্রামের মানুষের কাছ থেকে অসুস্থ ওই পাখি উদ্ধারের খবর পাওয়া মাত্রই বিষয়টি পাত্রসায়র বনদফতরে জানানো হয়। গ্রামবাসীদের বন্যপ্রান সচেতনতাকে সাধুবাদ জানান তিনি৷ গ্রামের মানুষের সচেনতার জন্য একটা নিরীহ প্রাণ রক্ষা হল৷

আরও পড়ুন: পাকিস্তান নিউজ চ্যানেলে প্রথম শিখ সঞ্চালক

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও