নয়াদিল্লি: ভারতে ইতিমধ্যেই বৈদ্যুতিক যানবাহন চলাচল শুরু হয়ে গিয়েছে। তবে ভারী গাড়ির ক্ষেত্রে সব ধরনের খরচ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে পুরনো পরিকাঠামোর একেবারে পরিবর্তন করা এত সহজ নয়। ধীরে ধীরে তা করা সহজ হবে বলে মনে করছেন গবেষকরা। তবে, গবেষকরা বেঙ্গালুরু থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে মান্ডায় এক ধরণের লিথিয়াম আবিষ্কার করেছেন। যা থেকে আশার আলো দেখতে পেয়েছেন ওই বিজ্ঞানীরা।

যে কোন ধরণের গাড়ির ক্ষেত্রে লিথিয়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। কারণ গাড়ির ব্যাটারি তৈরি করতে কাজে লাগে। তবে কেবলই গাড়ি নয় স্মার্টফোনের ক্ষেত্রেও এই লিথিয়াম ভীষণ কাজে লাগে। অ্যাটোমিক মিনারেল ডিরেক্টোরেট এবং অ্যাটোমিক এনার্জি কমিশনের একদল বিজ্ঞানী কর্ণাটকের কিছু দূর থেকে এই লিথিয়াম উদ্ধার করেছেন।

এন মুনিচন্দ্রন জানিয়েছে ১৪ হাজার টন লিথিয়াম ০৫ কিমিx৫ কিমি জায়গা জুড়ে আবিষ্কৃত হয়েছে। যার জেরে মনে করা হচ্ছে। দাম কমবে গাড়ি বা মোবাইলের দাম।

তবে এটি অন্যান্য দেশের তুলনায় খুব একটা বেশী নয়। মুনিচন্দ্রনের মতে এই আবিষ্কৃত লিথিয়ামের পরিমাণ অন্যান্য দেশের তুলনায় খুব একটা বেশী নয়। চিলির কাছে ৮.৬ মিলিয়ন, অস্ট্রেলিয়ার কাছে ২.৮ মিলিয়ন, আর্জেন্টিনার কাছে ১.৭ টন এর সাপেক্ষে এখানে আবিষ্কার হওয়া লিথিয়ামের পরিমাণ অনেক কম।