ফাইল ছবি

আলিপুর:  বাংলায় ফের ধর্ষণের ঘটনা। রাতের অন্ধকারে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা। মারাত্মক অভিযোগ ৭০ বছরের এক বৃদ্ধের বিরুদ্ধে। ঘটনায় আক্রান্ত ওই গৃহবধূ নিজের আত্মরক্ষায় কাঠারি নিয়ে ছুটে যায়। আর তাতে কাঁটা পড়ে বৃদ্ধের যৌনাঙ্গ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে ক্যানিং দাড়িয়া তেঁতুলবেড়িয়া গ্রামে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। ইতিমধ্যে স্থানীয় ক্যানিং থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন অভিযুক্ত ওই গৃহবধূ। লিখিত অভিযোগ পেয়ে ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার গভীর রাতে। ওই এলাকারই বাসিন্দা অভিযুক্ত ইউনুস মোল্লা। একেবারে রাতের অন্ধকারে স্থানীয় এক গৃহবধূর বাড়িতে দরজা ভেঙে ঢুকে পরে। সেই সময় বাড়িতে তাঁর ৩ সন্তান ছিলেন। তবে তাঁরা প্রত্যেকেই ঘুমাচ্ছিল অভিযোগ। আর সেই সুযোগটাই নেওয়ার চেষ্টা করে অভিযুক্ত। হঠাতর করেই বৃদ্ধ গৃহবধূর ওপর চড়াও হতেই গৃহবধূ চিৎকার করে।

সেই আওয়াজে ছুটে আসে ৩ জন। মাকে বাঁচাতে হাতের সামনে থাকা জিনিসপত্র এলোপাথারি ছুঁড়তে থাকে তারা। বেধড়ক মারধরও করা হয় বৃদ্ধকে। জানা গিয়েছে, সেই সময় প্রাণে বাঁচতে বৃদ্ধার যৌনাঙ্গ বটির কোপ মারে নির্জাতিতা। সেই সময় তা কেটে যায়। তারপরেই রক্তাক্ত অবস্থায় ওখান থেকে পালিয়ে যায় বৃদ্ধ। প্রথমে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে তাঁকে পাঠানো হয় কলকাতায়।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।