প্রতীকী ছবি

ঢাকাঃ  বাংলাদেশের মাটিতে চাঞ্চল্যকর ঘটনা। মাগুরার শ্রীপুর উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ। আর সেই ধর্ষনের পুরো ভিডিও করে রাখার অভিযোগ। আর সেই অভিযোগে এখনও পর্যন্ত দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। বাংলাদেশের শ্রীপুর থানার ওসি মাহবুবর রহমান জানান, মঙ্গলবার গভীর রাতে ওই গৃহবধূ আনিসুর রহমান ও রবিউল ইসলাম নামে ওই দুই যুবকের নামে থানায় মামলা করেন। অভিযুক্তরা হলেন শ্রীপুরের বরিষাট গ্রামের আজিজুর রজমান ছেলে আনিসুর রহমান (৩২) ও সাজ্জাদ হোসেন ছেলে রবিউল ইসলাম (২৭)।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, ওই গৃহবধূ মঙ্গলবার সকালে শ্বশুরবাড়ি থেকে ফরিদপুরে বাবার বাড়ি যাচ্ছিলেন। শ্রীপুর উপজেলা শহরের অদূরে বরিষাট গ্রামে নির্জন স্থানে পৌঁছালে ওই দুইজন তার গলার চেন ছিনিয়ে নেয় বলে অভিযোগ। তারপর তার মুখ চেপে ধরে আনিসুর তাকে ধর্ষণ করে আর রবিউল সে ভয়ানক ঘটনায় ভিডিও মোবাইল ফোনে তুলে রাখা হয় বলে অভিযোগ। একপর্যায়ে সুযোগ পেয়ে গৃহবধূ চিৎকার করলে লোকজন গিয়ে দুজনকে আটক করে পুলিশে দেয়।

এরপর নির্জতিতা গৃহবধূ শ্বরবাড়ি ফিরে যান। লোকলজ্জার ভয়ে প্রথমে তিনি থানায় অভিযোগ দেননি। পুলিশ ও সাংবাদিকেদের কাছেও ধর্ষণের কথা অস্বীকার করেছিলেন। রাত ৮টার দিকে পুলিশ তাকে বুঝিয়ে মামলা দিতে রাজি করায়। পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান বলেন, মামলার পর বুধবার পুলিশ তার ডাক্তারি পরীক্ষার ব্যবস্থা করে। অন্যান্য আইনি প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।