প্রতীকী ছবি

ঢাকাঃ  নেত্রকোণায় লাগাতার ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে এক কিশোরী। আর এই ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। কলমাকান্দা থানার ওসি মাজহারুল করিম জানান, পাঁচগাও পূর্ব জূলপাড়ার বাড়ি থেকে আকবর আলী নামে এই আসামিকে তারা গ্রেফতার করেন। ধৃত আকবর মোটরসাইকেল চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। তার স্ত্রী রয়েছে। কিন্তু এরপরেই এই ঘটনায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বাংলাদেশের মাটিতে।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, ধৃত আকবর ১৪ বছর বয়সী এই কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। এতে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। ঘটনা জানতে পেরে রাতেই কিশোরীর বাবা আকবরকে একমাত্র আসামি করে কলমাকান্দা থানায় মামলা করেন। সংশ্লিষ্ট ওই থানার ওসি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “আকবর ওই কিশোরীর সঙ্গে প্রেমের ভান করে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। সে এখন তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা।” তাকে ডাক্তারি পরীক্ষাসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ওসি মাজহারুল করিম।

এদিকে শুক্রবার নেত্রকোণা পৌরশহরের কাটলী এলাকায় তৃতীয় শ্রেণি পড়ুয়া এক শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে কামাল (৫৫) নামে এক অটোরিকশা চালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সদর থানার ওসি তাজুল ইসলাম জানান, বাড়িতে শিশুটিকে একা পেয়ে ওই ব্যক্তি তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। শিশুটি চিৎকার করলে কামাল পালিয়ে যান। পরে এলাকাবাসী তাকে ধরে পুলিশে দেয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।