মুম্বই : অনেকে হয় তো জানেন বলিউডে বছর শেষে অভিনেতা অভিনেত্রীদের রাউন্ড টেবিল হয়, যেখানে সেই বছরের মোস্ট সাকসেসফুল তারকারা তাঁদের সেই বছরের ফিল্ম জার্নি শেয়ার করেন৷ এ বছরের রাউন্ডটেবিলে ছিলেন দীপিকা পাডুকোন, রানি মুখোপাধ্যায়, অনুষ্কা শর্মা, তাপসী পান্নু, টাবু, আলিয়া ভাট৷

তাঁদের পেশাগত এবং ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কথা বলতে বলতে #MeToo মুভমেন্টের সম্বন্ধেও কথাবার্তা শুরু হয়৷ সেখানে দীপিকা, অনুষ্কা, আলিয়া মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে কথা বলতেই রানি তাঁদের বিরুদ্ধে কথা বলেন৷ রানির দাবি মহিলাদের বেশি সতর্ক থাকা উচিত৷

এমনকি নিজের বেশ কয়েকটি মন্তব্যের দ্বারা তিনি মেয়েদের দোষী সাব্যস্ত করার চেষ্টা করছিলেন৷ তবে সেই একই টেবিলে বসে থাকা দীপিকা তাঁর কথার বিরুদ্ধে নরম সুরে অনেক কিছুই বলেছেন৷ যেমন রানি #MeToo থেকে বিষয়টি ঘুরিয়ে আত্মরক্ষার দিকে নিয়ে চলে যাচ্ছিলেন৷

সেই সময় দীপিকা সরাসরি রানির দিকে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিলেন, “আত্মরক্ষার কথা এখানে হচ্ছে না৷ বিষয়টা যৌন হেনস্থা নিয়ে৷ প্রশ্নটা এটাই যে মহিলাদের সঙ্গে এই আচরণটা করার কথা কোনও পরুষ ভাববেই কেন৷ সুস্থ মানুষ তো এমন ভাবতে পারে না৷”

তিনি আরও বলেছেন যে এই ধরণের পরিবেশে মহিলাদের পড়তে হয় কারণ সেটা সেই মানুষগুলির দোষ যারা মহিলাটিকে এমন পরিবেশে থাকতে বাধ্য করছে৷ দীপিকার পাশাপাশি অনুষ্কা এবং আলিয়াও সমর্থন করেন৷ নেটিজেনরা রানির এই মন্তব্যের পর রীতিমত তাঁর নিন্দা করেছে৷

তাঁরাও রানির বিরুদ্ধে বলতে শুরু করেন, কাজের জায়গাটি সবথেকে সুরক্ষিত হওয়া উচিত৷ এতজন মহিলা এসে যখন বলছে তখন নিশ্চই এর মধ্যে সত্যতা রয়েছে৷ অন্যদিকে রানি কিন্তু থেমে থাকেননি৷

তিনি বলেছেন, মায়েদেরই ছেলে-মেয়েদের শিক্ষা দেওয়া উচিত৷ কারণ মায়েদের শিক্ষার জন্যই প্রত্যেক সন্তানরা বড়ো হয়ে ওঠে৷ পরে বিষয়টি ঘুরিয়ে দিয়ে তিনি বলতে থাকেন সব স্কুলে মার্শাল আর্টস শেখানো উচিত শিক্ষার্থীদের৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও