মুম্বই: বলিউড বাদশা শাহরুখক খানও একসময় পরীক্ষায় কম নম্বর পেয়েছিলেন, যে রেজাল্টের ছবি বেশ কিছুদিন আগেই ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়া থেকে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে৷ আর এবার আরও এক অভিনেতা রণবীর কাপুর পড়াশোনায় কেমন ছিলেন সেই খবরই উঠে এল বিনোদনের দুনিয়ায়৷ জানা গিয়েছে, স্কুলে আর পাঁচজন ছাত্রের মতোই ছিলেন তিনি৷ তারকা পুত্র হোয়ার কোনো আলাদা ছাপ দেখা যায়নি ছোটবেলায়৷ পড়াশোনাতেও তার মনযোগ কম থাকায়, তাঁর মা অভিনেত্রী নীতু কাপুর, তাঁর বাবা ঋষি কাপুরের কাছে নালিশ করার হুমকি দিতেন ছেলেকে৷

ঋষি-নীতু কাপুরের ছেলে রণবীর কাপুর যে অভিনেতা হবেন এমনটা হয়তো ভাবেননি খোদ এই দুই তারকা৷ ভাবেননি হয়তো রণবীর নিজেও৷ রণবীর নিজের সম্পর্কে জানিয়েছেন, স্কুলে রেজাল্ট বেরনোর সময় তাঁর মা নীতু কাপুর স্কুলে যেতেন৷ তিনি ক্ষমা চেয়ে নিয়ে বলতেন যে তিনি কঠিন পরিশ্রম করবেন, ভালো নম্বর ওঠাবেন, আর কোনও বিষয়ে ফেলও করবেন না৷ তিনি যখন বোর্ড পরীক্ষায় পাশ করেন তখন তাঁর বাড়ির সকলেই অবাক হয়ে যান৷

আরও পড়ুন: কম নম্বর ইংরেজিতে, তাও সুপারহিট বাদশাহ

সূত্রের খবর, পড়াশোনা প্রসঙ্গে রণবীর জানিয়েছেন, তাঁর পরিবারের পড়াশোনার ইতিহাস খুব একটা ভালো নয়৷ তাঁর বাবা অষ্টম শ্রেণীতে ফেল করেন, তাঁর জেঠু নবম শ্রেণীতে ফেল করেন, রণবীরের দাদা ষষ্ঠশ্রেণী পর্যন্তই পড়াশোনা করেছেন৷ এদিক থেকে দেখতে গেলে তিনি তাঁর পরিবারে সবথেকে শিক্ষিত বলে তিনি মনে করেন৷

অর্থনীতি নিয়ে পড়াশোনা করার পর তিনি ছবি তৈরির খুঁটিনাটি শিখতে নিউইয়র্কে চলে যান৷ সেখানেই তিনি ছবির সঙ্গে আরও বেশি করে জড়িয়ে যান৷ শোনা যায়, তিনি যখন দেশে ফিরে আসেন তখন তিনি সোজা চিত্র পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালির অফিসে গিয়ে নিজের বায়োডেটা জমা দিয়ে আসেন৷ তারপরেই ব্ল্যাক ছবিতে পরিচালক তাঁকে সহ-পরিচালকের কাজ দেন৷ শুধু পরিচালনার ক্ষেত্রেই নয়, সঞ্জয় লীলা ছবির হাতে ধরেই তাঁর বলিউডে অভিনয় জগতে প্রবেশ৷ ‘সাওরিয়া’ ছবি যেন তাঁর কেরিয়ার শুরুর মাইলস্টোন৷