পাটনা: দেশের নাগরিকদের খাদ্যের অধিকার সুনিশ্চিত করতে এক দেশ, এক রেশন কার্ড চালু করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের এই উদ্যোগের কথা ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন গ্রাহক পরিষেবা, খাদ্য ও গণবন্টন মন্ত্রকের মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান।

পাটনায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পাসোয়ন জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই বছরের শুরু থেকে প্রাথমিকভাবে দেশের ১২টি রাজ্যে এই ব্যবস্থা চালু হয়েছে। অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গনা, গুজরাত, মহারাষ্ট্র, হরিয়ানা, রাজস্থান, কর্নাটক, কেরল, গোয়া, মধ্যপ্রদেশ, ত্রিপুরা ও ঝাড়খণ্ডে প্রাথমিকভাবে এই প্রক্রিয়া চালু হয়েছে। এই রাজ্যগুলির নাগরিকরা একে অপরের রাজ্যে গিয়েও নিজেদের রেশন কার্ড দেখিয়ে প্রাপ্য রেশন তুলতে পারবেন।

তবে চলতি বছরের জুন মাস থেকেই গোটা দেশে এই ব্যবস্থা চালু করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের এই উদ্যোগের ফলে নাগরিকরা দেশের যে কোনও প্রান্তের রেশন দোকান থেকে সরকার নির্ধারিত ভরতুকি-সহ খাদ্যশস্য কিনতে পারবেন।

২০১৯ সাল থেকেই ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ নিয়ে কাজ শুরু করে খাদ্যমন্ত্রক। গত বছরের ডিসেম্বরে সেই কাজের অধিকাংশই শেষ হয়ে যায়। এরপর প্রাথমিকভাবে দেশের ১২টি রাজ্যকে চিহ্নিত করে খাদ্যমন্ত্রক। কেন্দ্রের ভাবনা অনুযায়ী ওই রাজ্যগুলিতে রেশন বণ্টনে এই নয়া ব্যবস্থা কার্যকর করা হয়। রাজ্য প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়েই ওই প্রক্রিয়া চালু করে কেন্দ্রীয় সরকার। সূত্রের খবর, প্রাথমিকভাবে দেশের ১২টি রাজ্যে এই প্রক্রিয়া চালুর পর বিস্তারিত তথ্য নিতে শুরু করে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই তথ্যে সন্তুষ্ট হয়েই পরবর্তী ধাপ নিয়ে আলোচনা শুরু করে খাদ্যমন্ত্রক। মন্ত্রকের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে দফায়-দফায় আলোচনা করেন কেন্দ্রীয় খাদ্যমন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান। তারপরই ঠিক হয় জুন থেকে সারা দেশে ‘এক দেশ এক রেশন কার্ড’ ব্যবস্থা চালু করবে কেন্দ্রীয় সরকার।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও