অযোধ্যা: আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাদেই ভূমিপূজা হবে রামলাল্লার জন্মস্থানে। চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ইতিমধ্যেই আচার-অনুষ্ঠান শুরু হয়ে গিয়েছে অযোধ্যায়। তিন দিন আগে থেকে বৈদিক আচারমেনে চলছে পুজো পাঠ।

সোমবার গণেশের পুজো করেছেন ২১ জন পুরোহিত। মঙ্গলবার রাম ও সীতার রাজ্যের দেব-দেবীদের পুজো হওয়ার কথা। এদিন অযোধ্যার হনুমানগড়ি মন্দিরেও পুজো দেওয়া হবে।

জানা গিয়েছে, বুধবার মাত্র ৩২ সেকেন্ডের জন্য স্থায়ী হবে পূন্য লগ্ন। ১২ টা ৪৪ মিনিট ৮ সেকেন্ড থেকে ১২ টা ৪৪ মিনিট ৪০ সেকেন্ড পর্যন্ত সেই মহরত স্থায়ী থাকবে।

মূল অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে ১৭৫ জনকে, যার মধ্যে ১৩৫ জন সাধু-সন্ত থাকছেন।

ট্রাস্টের তরফে জানানো হয়েছে বুধবার রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর অনুষ্ঠান-মঞ্চে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছাড়া আর চার জন উপস্থিত থাকবেন। তাঁরা হলেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ প্রধান মোহন ভাগবত, উত্তরপ্রদেশের রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ও ট্রাস্টের প্রধান মোহন্ত নিত্য গোপালদাস।

করোনা আতঙ্ক দেশজুড়ে। এরই মধ্যে বুধবার অযোধ্যার রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর অনুষ্ঠান। ভূমি পুজোর অনুষ্ঠান ঘিরে চূড়ান্ত তৎপরতা শুরু হয়েছে।

কোনওভাবেই যাতে এই মেগা ইভেন্টকে কেন্দ্র করে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেব্যাপারে সচেষ্ট শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্ট। বুধবারের অনুষ্ঠান-মঞ্চে মোদী-সহ মাত্র পাঁচ জনকে রাখা হচ্ছে। করোনা আতঙ্কে ইতিমধ্যেই বিজেপিনেত্রী উমা ভারতী ভূমি পুজোর অনুষ্ঠানে থাকবেন না বলে জানিয়েছেন।

এছাড়াও বর্ষীয়ান লালকৃষ্ণ আদবানি ও মুরলী মনোহর জোশির মতো নেতারাও ভার্চুয়াল মাধ্যমেই এই অনুষ্ঠান দেখবেন। এমনিতেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও সহ অ্য মন্ত্রী-নেতারা সতর্ক রয়েছেন। ভিড়-সমাগম এড়িয়ে চলা ছাড়াও একাধিক সতর্কতামূলক পদক্ষেপ করছেন তাঁরা।

অযোধ্যার রাম মন্দির চত্বরেও থাবা বসিয়েছে করোনা। প্রথমে রাম মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ও তাঁর বেশ কয়েকজন সহযোগী ছাড়াও প্রস্তাবিত মন্দির চত্বরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মীও করোনা আক্রান্ত হন। সেই কারণেই কোনও ঝুঁকি নিতে নারাজ কর্তৃপক্ষ। সংক্রমণ রোধে তাই মোদী-সহ ভিভিআইপিদের সুরক্ষায় চূড়ান্ত তৎপরতা নেওয়া হচ্ছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা