নয়াদিল্লি: ধর্ষণের দায়ে দোষী হিসেবে সব্যস্ত হয়ে আপাততে জেলেই দিন কাটাচ্ছেন গুরমিত রাম রহিম সিং৷ কিন্তু তার জেলে যাওয়ার পর থেকেই ৭০০একর জমি নিয়ে শুরু হয় বচসা৷ কে হবে এই সম্পত্তির মালিক? অবশেষে সব গুঞ্জনের অবসান ঘটালেন ডেরার প্রধান সাধ্বী বিপাসনা ইনসান৷ তিনি ডেরা সামলানোর দায়িত্বভার অর্পণ করলেন রাম রহিমের ছেলে জসমীত ইনসানের উপরে৷

আরও পড়ুন: চিনা পণ্যেই গুজরাতে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছে বিজেপি

তবে, এই পদের দায়িত্ব কে পেতে চলেছে সেই নিয়ে বিভিন্ন মহলে নানা চাপা গুঞ্জন রটেছিল৷ কেউ কেউ মনে করেছিলেন রাম রহিমের পালিত কন্যা হানিপ্রীত হয়তো এই পদের দায়িত্ব সামলাবেন৷ কিন্তু রাম রহিম কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত হয়ে পরে সেও৷ আপাতত তার ঠাঁইও হয়েছে শ্রীঘরে৷ বিপাসনা ইনসানও এই দায়িত্বভার পেতে পারেন বলে শোনা গিয়েছিল৷ কিন্তু সব জল্পনার কল্পনার অবসান ঘটিয়ে এই পদের দায়িত্বে এলেন স্বঘোষিত ধর্মগুরুর ছেলে জসমীত৷

আরও পড়ুন: ৪৩১জন পাক নাগরিককে দীর্ঘমেয়াদী ভিসা দিল মোদী সরকার

২০০৭ সালে রাম রহিম তাঁর ছেলে জসমীতকে উত্তরাধিকার মনোনীত করেছিলেন৷ ধর্ষণ ও খুনের মামলায় তাঁকে সিবিআই গ্রেফতার করার পর স্বঘোষিত বাবা তাঁর ছেলেকে উত্তরাধিকার দেন৷ জসমীত বিবাহিত৷ পঞ্জাবের প্রাক্তন বিধায়ক ও কংগ্রেস নেতা হরমিন্দর সিং জস্সীর মেয়ের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়৷ এখন তাঁদের দুই মেয়ে আছে৷ ১ ছেলের পাশাপাশি রাম রহিমের ৩ মেয়েও আছে৷ তাঁদের নাম হনীস্প্রীত ইনসান, চরণপ্রীত কউর ইনসান ও অমরপ্রীত কউর ইনসান ৷