সিরসা: জেলে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে স্বঘোষিত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিং। এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি জানিয়ে হাইকোর্টে পিটিশন জমা দিলেন হরিয়ানার সিরসার ডেরা সচ্চা সৌদার চিকিৎসক। ধর্ষণের অভিযোগে ২০ বছরের কারাবাসে আপাতত রোহতকের সুনারিয়া জেলে রয়েছেন গুরমিত।

ডেরা সচ্চা সৌদার চিকিৎসক মোহিত গুপ্ত পিটিশনে জানিয়েছেন গুরমিতকে কারুর সঙ্গেই দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না। কাউকেই ফোন করতেও বাধা দিচ্ছে জেল কর্তৃপক্ষ। এইভাবে গুরমিতকে মানসিক ভাবে দুর্বল করার চেষ্টা করা হচ্ছে। জেলে শারীরিকভাবে প্রবল নির্যাতন করা হচ্ছে বলেও দাবি করা হয়েছে এই পিটিশনে।

২০১৭ সালে অগস্ট মাসে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় ডেরা সাচ্চা সৌদার প্রধান গুরমিত রাম রহিমকে। তাঁর গ্রেফতারি ঘিরে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় হরিয়ানার সিরসা। জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধের মাঝেই যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে বিচার প্রক্রিয়া শেষ হয়। ধর্ষণ সহ একাধিক গুরুতর মামলায় ২০ বছরের কারাবাস হয় গুরমিতের। নিরাপত্তার খাতিরে রোহতকের সুনারিয়া জেলে স্থানান্তরিত করা হয় এই /’গডম্যানকে’।

সুনারিয়া জেলে গুরমিতের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে সেই আশঙ্কাও প্রকাশ করেছেন মোহিত। পিটিশনে তিনি জানিয়েছেন, এই জেলে এর আগে প্রায় এক ডজন মোবাইল উদ্ধার হয় আর এখানে বন্দিদের মধ্যে মারামারিও প্রায় নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। বহু দাগী অপরাধীও এই জেলেই রয়েছেন ফলে গুরমিতের উপর যেকোনো মুহূর্তে হামলা নেমে আসতে পারে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এই চিকিৎসক। এর আগেও নিজের মেয়ের বিয়ে উপলক্ষে জেল থেকে প্যারোলে মুক্তি পেয়েছিলেন রাম রহিম।

পিটিশনের আবেদন জানালেও এখনও পর্যন্ত শুনানি কবে হবে তা জানায় নি পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট।