লখনউ: নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীনই রাম মন্দির তৈরি হবে অযোধ্যায়। এমনটাই উল্লেখ করেন বিজেপি নেতা বিনয় কাটিয়ার। তিনি বলেন, ‘যেভাবে বাবরি মসজিদের কাঠামো ধ্বংস করা হয়েছিল, অযোধ্যায় সেভাবে রাম মন্দির তৈরি করা হবে। যারা রাম মন্দির তৈরি করতে চায় না, তারা অরাজক।

জাতপাত ও ধর্মের ভিত্তিতে ভোট চাওয়া যাবে না। সুপ্রিম কোর্ট সম্প্রতি এমনই জানিয়েছে। কিন্তু, তারপরও শীর্ষ আদালতের কথায় পাত্তা না দিয়ে, ক্রমাগত একের পর এক রাজনৈতিক দল যেভাবে ভোটের প্রচার শুরু করছে, তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। তার মধ্যেই ফের রাম মন্দিরকে হাতিয়ার করেই উত্তরপ্রদেশে এবার বিজেপি বাজিমাত করতে চাইছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

বিনয় কাটিয়ার বলেন, সংসদে আইন এনে রাম মন্দির তৈরির পথে এগোতে হবে। এরজন্য রাজ্যসভায় বিজেপির সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রয়োজন। আর সেই কারণেই উত্তরপ্রদেশ থেকে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে জিততে হবে বিজেপিকে। সাধারণ মানুষ যাতে বিজেপিকে ভোট দেন, সেই আবেদনও করেছেন বিনয় কাটিয়ার।

শুধু বিনয় কাটিয়ার নন, গিরিরাজ সিংও রাম মন্দির তৈরি নিয়ে বেশ জোর গলায় দাবি করেছেন। সোমবার তিনি বলেন, রাম মন্দির তো হবেই।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।