হাওড়া: কয়েকদিন আগেই পুলিশের উপর হামলা হওয়ায় শিরোনামে উঠে আসে হাওড়ার টিকিয়াপাড়া। ভিডিওতে দেখা যায় পুলিশের উপর মারধর করছে একদল লোক। এবার সেই টিকিয়াপাড়ারই অন্য একটা ভিডিও ভাইরাল।

সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সামনে হেঁটে যাচ্ছে পুলিশ। তাদের পিছনে যাচ্ছে একদল লোক। যাদের মুখে মাস্ক থাকলেও, তাদের মধ্যে সোশ্যাল ডিসট্যান্স প্রায় নেই বললেই চলে। অনেকেই পুলিশকে লক্ষ্য করে ফুল ছুঁড়ছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন একটি পিস র‍্যালির আয়োজন করা হয়েছিল। আর তাতেই নাকি যোগ দিয়েছিলেন স্থানীয় মানুষ।

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই এলাকায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে কি না, তা খতিয়ে দেখার জন্য অন্তত ২০০ জনকে নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সদস্যদের দেওয়া হয় টি-শার্টও। রবিবার দুপুরের দিকে সে কারণে টিকিয়াপাড়ায় গিয়েছিলেন পুলিশকর্মীরা। ডিসি হেড কোয়ার্টার প্রিয়ব্রত রায়ের দাবি, সেই সময়ে বেশ কয়েকজন তাঁদের দেখে এগিয়ে আসেন। ভিড় জমায় তাঁদের ঘিরে। এই ঘটনারই বেশ কয়েকটি ছবি এবং ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

হাওড়া সিটি পুলিশের এসিপি সেন্ট্রাল অলোক দাশগুপ্ত বলেন, ‘আমরা একটা কোভিড জিরো ভলান্টিয়ার টিম তৈরি করেছি। ১০০ সদস্য রাখা হয়েছে ওই টিমে।  সবজি বিক্রেতা বা ফল বিক্রেতারা যাতে রাস্তায় এসে ভিড় না বাড়ান, সেই দেখাশোনা করবে এই টিম। হাওড়ার টিকিয়াপাড়া ফাঁড়ি থেকে বেলিলিয়াস রোড পর্যন্ত এই র‍্যালি হয়।’ তিনি জানান, এদিন মানুষ সেদিনের ঘটনার প্রতিবাদ করেন।

যদিও ওই ভিডিও-র সত্যতা যাচাই করেনি Kolkata24x7।

লকডাউনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কয়েকদিন আগে পর্যন্ত টিকিয়াপাড়ার বেলিলিয়াস রোড চত্বর ছিল জমজমাট। ফাঁকা রাস্তায় ক্রিকেট খেলা থেকে শুরু করে, রাস্তার পাশের ঘুপচি দোকানে বিরিয়ানি খাওয়া ও সঙ্গে দেদার আড্ডাও চলছিল রমরমিয়ে। করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করেই রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত হাওড়ার জেলার টিকিয়াপাড়ায় অভিযানে যায় পুলিশ।

টহলদারির সময়েই কর্তব্যরত পুলিশকর্মীদের সঙ্গে বচসায় জড়ায় জনতা। লকডাউনের নিয়ম মানতে বলায় উত্তেজনা চরমে ওঠে। পুলিশকে তাড়া করে স্থানীয়দের একটা বড় অংশ। পুলিশকর্মীদের উপর চড়াও হয় এলাকারই প্রায় শ’তিনেক মানুষ।

এরই মধ্যে ভিড় ঠেলে এসে পিছন থেকে এক পুলিশকর্মীকে সপাটে লাথি মারতে দেখা যায় এক যুবককে। গন্ডগোলের মুহূর্তের ফুটেজ খতিয়ে দেখার পরে পুলিশকে লাথি মারার ঘটনায় স্থানীয় যুবক সাকিরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় মোট ১৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প