কলকাতা: ২০২০ এর রাখি অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আজ অর্থাৎ ৩ অগস্ট সোমবার। এই দিনটির রয়েছে বিশেষ গুরুত্ব। রাখি ছাড়াও আজ অন্নাধন, বেদ মাতা গায়ত্রী জয়ন্তী, যজুর্বেদ ভ্যাপকর্মা, নরলি পূর্ণিমা, হায়গ্রীব জয়ন্তী, সংস্কৃত দিবস এবং শ্রাবণের পূর্নিমা ও শ্রাবণের পঞ্চম ও শেষ সোমবার।

এই জটিল সিক্যুয়েন্সে সাবধান হয়ে দেখে নেওয়া যাক, কখন রাখির জন্য শুভ, আর কখন ভুলেও রাখি পড়াবেন না ভাইকে।

জ্যোতির্বিদ কমল নন্দলালের মতে, এবার রাখিতে আয়ুষ্মান যোগ তৈরি হচ্ছে, যা ভাই-বোনদের দীর্ঘজীবন দেবে। শুভ সময়ে রাখি বাঁধা হলে ভাই বোনের জন্য সৌভাগ্য আসবে।

রাখিতে সকাল ৭ টা ১৯ থেকে চন্দ্রমার নক্ষত্র শুরু হবে, যে কারণে যে কারণে একে শ্রাবণী পূর্ণিমাও বলে। ৭ টা ১৯ থেকে পরবর্তী ৫ মিনিট ৪৪ সেকেন্ড সর্বত্র সিদ্ধিকী যোগও রয়েছে।

রাখির কেবল একটি মুহূর্ত এমন আছে, যখন ভাইবোনদের দীর্ঘজীবনই নয়, তাদের ভাগ্যকে আরও শক্তিশালী করে তুলবে। রাখি পড়ানোর শুভ সময় থাকবে সকাল ৯ টা ২৫ থেকে সকাল ১১ টা ২৮ মিনিট পর্যন্ত।

সন্ধ্যাবেলা যারা রাখি বাঁধতে চান তাদের জন্য সেরা সময় দুপুর ৩ টে ৫০ মিনিট থেকে বিকেল ৫ টা ১৫ পর্যন্ত। এই সময় রাখি পড়ালে তা ভাই এবং বোন উভয়ের জন্যই ফলপ্রসূ হবে।

বলা হচ্ছে, ভোর ৫ টা ৪৪ মিনিট থেকে সকাল ৯ টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত ভদ্রা থাকবে, এই মুহূর্তে রাখি বাঁধা নিষিদ্ধ বলে ধরা হয়। অন্যদিকে আবার সকাল ১১ টা ২৮ মিনিট থেকে ১ টা বেজে ৭ মিনিট অবধি থাকছে অশুভ প্রহর। তবে এতেও শেষ না, ফের ২ টো ৮ মিনিট থেকে ৩ টে ৫০ অবধি থাকবে অশুভ প্রহর।

তাই শুভ সময় বুঝে পড়ে ফেলতে হবে বা পড়িয়ে ফেলতে হবে রাখি। শুভ রাখি দিবস।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও