হায়দরাবাদ : প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আত্মনির্ভরতার ডাক দিয়েছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। সেই পথে হেঁটে এবার প্রতিরক্ষা সামগ্রী বানাল দেশীয় সংস্থা ভারত ডায়নামিক লিমিটেড। শুক্রবার এই সংস্থার তৈরি দুটি প্রতিরক্ষা সামগ্রীর উদ্বোধন করলেন রাজনাথ। এদিন উদ্বোধন করা হল মিসাইল টেস্ট ইকুইপমেন্ট ও লঞ্চার টেস্ট ইকুইপমেন্ট।

বিডিএলের তৈরি করা এই দুটি প্রতিরক্ষা সামগ্রী দেশের নিরাপত্তার কাজে সেনাবাহিনীকে সহায়তা করবে বলে আশা প্রকাশ করেন রাজনাথ সিং। আগে এই সামগ্রী দুটি রাশিয়া থেকে আমদানি করা হত। সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি এই যন্ত্রদুটির উদ্বোধন করা হয় ভার্চুয়ালি।

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত, প্রতিরক্ষা সচিব অজয় কুমার, প্রতিরক্ষা উৎপাদন সচিব রাজ কুমার, প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের শীর্ষস্থানীয় আধিকারিকরা ও বিডিএল সংস্থার সিএমডি সিদ্ধার্থ মিশ্র। এই প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম দুটি আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্পের অন্তর্গত বলে জানানো হয়েছে।

গত ৭ই অগাষ্ট থেকে শুরু হওয়া আত্মনির্ভর ভারত সপ্তাহ শেষ হচ্ছে শুক্রবার, ১৪ই অগাষ্ট। মিসাইল টেস্ট ইকুইপমেন্টটি বানানো হয়েছে অ্যান্টি ট্যাংক গাইডেড মিসাইলের জন্য। অন্যদিকে, লঞ্চার টেস্ট ইকুইপমেন্টটি বানানো হয়েছে মিসাইল লঞ্চারগুলির জন্য। আত্মনির্ভর ভারত। নয়া শ্লোগান কেন্দ্র সরকারের।

বিদেশি পণ্যের ওপর নির্ভরশীল হয়ে না থেকে দেশীয় পণ্যকে সুযোগ করে দেওয়াই আত্মনির্ভর ভারতের মূল মন্ত্র। সেই দিকে নজর রেখেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের আওতায় শুরু হয়েছে আত্মনির্ভর ভারত পরিকল্পনা।

এই আত্মনির্ভর ভারত পরিকল্পনার প্রথম ধাপ হিসেবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক শুরু করে আত্মনির্ভর ভারত সপ্তাহ। উল্লেখ্য অস্ত্র আমদানির ক্ষেত্রে বিশ্বে ভারত রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। অস্ত্র রফতানিতে ২৩ নম্বর স্থানে রয়েছে ভারত। প্রধানমন্ত্রী মোদী আগামী পাঁচ বছরে প্রতিরক্ষা রফতানিতে ৫বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা রেখেছেন।

তাঁর আশা ভারত আগামী পাঁচ বছরে অর্থাৎ ২০২৫ সালের মধ্যে ১.৭৫ লক্ষ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম রফতানি করতে সক্ষম হবে। প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে ছিলেন ২০১৫ থেকে ২০২০-র মধ্যে তিন বাহিনীতে এরকম অন্তত সাড়ে ৩ লক্ষ টাকার অস্ত্র ও সরঞ্জাম আমদানি করা হয়েছে। এবার এই সিদ্ধান্তের পর ভারতীয় সংস্থাই ৪ লক্ষ টাকার বরাত পাবে আগামী ৬-৭ বছরে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।