ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: লাদাখে চিন ও ভারত সীমান্তে চড়ে রয়েছে পারা। এমন উত্তেজক পরিস্থিতির মধ্যেই রাশিয়া সফরে যাবেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তবে মস্কো সফরকালে শীর্ষস্থানীয় চিনা নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন না তিনি। জানা গিয়েছে, আগামী ২২ জুন রাশিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন তিনি।

জানা গিয়েছে, রাজনাথ সিং মস্কোয় শীর্ষস্থানীয় রাশিয়ান নেতাদের এবং অন্যান্য দেশের নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। কিন্তু তিনি চিনা নেতাদের সঙ্গে কোনও সাক্ষাৎ করবেন না। রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে প্রতিরক্ষা সচিব অজয় ​​কুমার এবং প্রতিটি সশস্ত্র বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তা থাকবেন।

১৫ জুন রাতে লাদাখের গালভান উপত্যকায় চিন ও ভারতের সেনারা মুখোমুখি হয়ে সংঘাতে লিপ্ত হয়। সূত্রের খব অনুযায়ী চিনা সেনারা রীতিমতো লোহার রড নিয়ে উপস্থিত ছিল। সেগুলিতে ছিল ধারালো স্পাইক। অস্ত্রটিকে আরও ভয়ঙ্কর করে তুলতে রডে জড়িয়ে নেওয়া হয়েছিল কাঁটাতার।

ওই সংঘাতে শহিদ হন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। অন্যদিকে চিনের ৪৫ জন সেনা হতাহত হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। চিন আবার দাবি করেছে, তাঁরা না বরং ভারতই সেনারাই প্রথম আঘাত হেনেছিল।

অন্যদিকে এই উত্তেজক পরিস্থিতির মধ্যেই রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজ সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছেন। প্রায় ১৭ টি রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা এই সভায় অংশ নেবেন। এতে বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হবে। সর্বদল বৈঠকে থাকবেন সোনিয়া গান্ধী, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, শরদ পওয়ার, সীতারাম ইয়েচুরি, ডি রাজা, জগনমোহন রেড্ডি, চন্দ্রবাবু নাইডুরা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।