স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সারদা মামলার পর রোজভ্যালি কান্ডেও বিপাকে এডিজি সিআইডি রাজীব কুমার। সোমবারের হাজিরা এড়িয়ে এবার সিবিআইয়ের কাছে সময় চাইলেন রাজীব। এমনটাই সিবিআই সূত্রে খবর।

গতকাল অর্থাৎ রবিবার রোজভ্যালি-কাণ্ডে পার্ক স্ট্রিটের রাজীব কুমারের সরকারি বাসভবনে হাজিরার জন্য নোটিস দিয়েছে সিবিআই। সেই নোটিসে তাকে আজ সোমবার সল্টলেক সিজিও কমপ্লেক্সের সিবিআই দফতরে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সোমবার খবর লেখার আগ পর্যন্ত সিবিআই দফতরে আসেননি রাজীব কুমার।

সূত্রের খবর, রোজভ্যালি-কাণ্ডে নোটিস পাওয়ার পরই প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার সিবিআইয়ের কাছে সময় চেয়েছেন। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি সময় চেয়েছেন। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, তিনি ৩০ তারিখ পর্যন্ত ছুটিতে রয়েছেন। যদিও এর আগে রাজ্য সরকার জানিয়েছিল যে, এডিজি সিআইডি রাজীব কুমার ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছুটিতে রয়েছেন।

সারদা মামলার পর নাটকীয় অবস্থান নিল সিবিআই। যদিও কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা প্রতিদিন হন্যে হয়ে খুঁজছে রাজীব কুমারকে। এগারো দিন কেটে গেলেও কোন হদিশ পাওয়া যায়নি দুধে গোয়েন্দার। রবিবারের পর সোমবারও তার পার্কস্ট্রীটের বাড়িতে গিয়েছে সিবিআইয়ের একটি টিম।

সোমবার দুপুরে ৮ সদস্যের একটি সিবিআই টিম রাজীব কুমারের বাড়িতে পৌঁছয়। সূত্রের খবর, এদিনও সেখানে দীর্ঘক্ষণ তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআইয়ের তদন্তকারী টিম। এমনকি ফের একবার রাজীব কুমারের স্ত্রী সঞ্চিতা কুমারকে তদন্তকারী আধিকারিকরা জিজ্ঞাসাবাদ করেন। রাজীবের খোঁজ পেতে।

অন্যদিকে সোমবার নিম্ন আদালতের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন রাজীব কুমারের স্ত্রী সঞ্চিতা কুমার। এদিন তিনি রাজীবের হয়ে ওই আবেদন জানিয়েছেন বলে খবর। তবে আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার দুপুরে সিআইডির এক আধিকারিকের সঙ্গে আদালতে আসেন রাজীব কুমারের স্ত্রী সঞ্চিতা কুমার। একই সময় সিবিআইয়ের একটি দল আদালতে উপস্থিত হয়।