স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রাক্তন নগরপাল রাজীব কুমার সিবিাই মামলার শুনানি শুরু হচ্ছে চলতি মাসের ১৭ তারিখ থেকে৷ মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন দুপুর ২ থেকেক শুানানি চলবে৷ সোমবার এই নির্দেশই দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট৷ দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যেই এই নির্দেশ হাইকোর্টের৷

সিবিআই নোটিশ খারিজের আবেদন জানিয়ে সোমবারই হাইকোর্টে আবেদন জানান রাজীব কুমারের আইনজীবী৷ উল্লেখ্য, রদাকাণ্ডে রাজীবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরা দিতে নোটিশ পাঠায় সিবিআই। এদিকে, রাজীব কুমারের আবেদনের ভিত্তিতে আগেই হাইকোর্ট জানিয়ে দেয়, আগামী ২২ জুলাই পর্যন্ত কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে গ্রেফতার করা যাবে না।

আরও পড়ুন – বৃহস্পতিবার আস্থা ভোটের সামনে কর্ণাটকের কুমারাস্বামী সরকার

সারদাকাণ্ডে প্রমাণ লোপাটের অভিযোগে চিটফান্ডকাণ্ডে রাজ্য সরকার গঠিত সিটের প্রধান রাজীব কুমারকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় সিবিআই। এ নিয়ে বিস্তর টানাপোড়েন চলে। সিবিআইকে রাজনৈতিক স্বার্থে মোদী সরকার ব্যবহার করছে বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷

ধর্মতলায় ধর্নায় বসেন তিনি৷ শেষমেশ আদালতের নির্দেশ শিলং-এ টানা কয়েকদিন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁকে৷ এবছরের জুনে সিবিআই দফতর সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরা দেন রাজীব কুমার। সেদিন প্রায় ৪ ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এই আইপিএসকে৷

আরও পড়ুন – সব্যসাচী দত্তের অনাস্থা মামলা: বিধাননগরের চেয়ারপার্সনের জবাব তলব হাইকোর্টের

২০১৩ সালে প্রকাশ্যে আসে সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারি৷ সেই সময় এই মামলার তদন্তে বিশেষ তদন্তকারী দল বা সিট গঠন করেছিল রাজ্য সরকার। যার নেতৃত্বে ছিলেন তৎকালীন বিধাননগরের কমিশনর রাজীব কুমার৷ কিন্তু, সিবিআই তদন্তভার নেওয়ার পর কলকাতা প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের ভূমিকা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে৷ সিটের তদন্তে বিশেষ তদন্তকারী দলের প্রধানের কী ভূমিকা ছিল, সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেন ও দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে গ্রেফতারের সময় কী কী নথি উদ্ধার হয়েছিল, তা জানতে চান কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা। তবে, তার উত্তর সঠিক মেলেনি বলে অভিযোগ৷

এদিকে, সারদা কেলেঙ্কারিতে জড়িত ছয় অভিযুক্তকে নোটিশ পাঠিয়েছে ইডি। কুণাল ঘোষ, ব্যবসায়ী সজ্জন আগরওয়াল, সন্ধির আগরওয়াল, দেবব্রত সরকার, অরিন্দম দাস, শতাব্দী রায়কে সমন পাঠিয়েছে তদন্তকারী সংস্থাটি। এই সপ্তাহের মধ্যেই তাঁদের সিজিওতে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট৷