জয়পুর: মণীশের হাফসেঞ্চুরি, ওয়ার্নারের ৩৭৷ পাওয়ার প্লে’তে এক উইকেট হারিয়ে ৫১! শুরুটা বিস্ফোরক হলেও ব্যাটিং ভরাডুবিতে রাজস্থানের বিরুদ্ধে রানের পাহাড় গড়া হল না সানরাইজার্সের৷

আরও পড়ুন-পুরুষদের ওয়ান ডে ম্যাচে প্রথম মহিলা আম্পায়ার

প্রথম ৬ ওভার কাটতে রাজস্থান বোলারদের দুরন্ত প্রত্যাঘাতে ভেঙে পড়ে হায়দরাবাদের ব্যাটিং৷ ৮ উইকেট হারিয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৬০ রান তুলল ওরেঞ্জ আর্মি৷ সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ছুঁডে় দেওয়া লড়াকু টোটাল তাড়া করে ঘরের মাঠে ম্যাচ জিততে রাজস্থানের প্রয়োজন ১৬১ রান৷

আরও পড়ুন- কোচের জন্য আবেদন করতে হবে দ্রাবিড়কে

জোফরা আর্চার-বেন স্টোকস ও জোস বাটলার, দলের তিন ইংল্যান্ডের ক্রিকেটার দেশে ফিরে যাওয়ার পর সানরাইজার্সের মতো কঠিন প্রতিপক্ষকে ১৬০ রানের মধ্যে বেঁধে রাখা সত্যিই প্রশংসনীয় পারফর্ম্যান্স৷ পরিসংখ্যান বলছে, জয়পুরের সোয়াই মান সিং স্টেডিয়ামে প্রথম ব্যাট করা দলের গড় রান ১৬৪৷ এই রানের গণ্ডির মধ্যে সানরাইজার্সকে বন্দি করে অ্যাডভান্টেজে রাজস্থান৷

আরও পড়ুন- আইপিএলে রেকর্ড হাতছাড়া ওয়ার্নারের

টস জিতে এদিন সানরাইজার্সদের ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানায় রাজস্থান৷ বেয়ারস্টো ফিরে যেতে ওয়ার্নারকে সঙ্গ দিতে ওপেনিংয়ে নামেন সানরাইজার্স অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন৷ ব্যাটিংয়ে উপরের দিকে উঠে এলেও রানের খরা কাটাতে পারেননি উইলিয়ামসন৷ শ্রেয়স গোপালের বলে ১৩ রানে বোল্ড হয়ে ফেরেন সানরাইজার্স কাপ্তান৷

৬১ রানের দুরন্ত ইনিংস মনীশ পান্ডের

আরও পড়ুন- প্রিয় ইডেনেই প্লে-অফের ছাড়পত্র পেতে চান ‘হিটম্যান’

ওয়ার্নার অন্যদিকে ৩২ বলে ৩৭ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে প্যাভিলিয়নে পেরেন৷ তিন নম্বরে নেমে ৩৬ বলে ৬১ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন মনীশ পান্ডে৷ তাঁর ব্যাটিংয়ের সুবাদেই শেষ পর্যন্ত ১৬০ রানের গণ্ডি পার করে সানরাইজার্স৷ বাকিদের মধ্যে শেষদিকে ৪ বলে ১টি বাউন্ডারি ও ১টি ছক্কা হাঁকিয়ে ১৭ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলেন রশিদ৷ রাজস্থানের হয়ে বরুণ অ্যারন, থমাস, গোপাল, উনাদকটরা ২টি করে উইকেট তুলে নিয়েছেন৷