জয়পুর: পাকিস্তানকে তথ্য সরবরাহ করত নবাব খান৷ মঙ্গলবার সেই পাক চরকে গ্রেফতার করল রাজস্থান পুলিশের সিআইডির স্পেশাল ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা৷ ৩৬ বছর বয়েসী এই ব্যক্তি বিভিন্ন পাক সংস্থাকে ভারতের সীমানা এলাকার নানা তথ্য সরবরাহ করত বলে খবর৷

একটি পাকিস্তানি এজেন্সির হয়ে কাজ করত নবাব খান৷ যার মূল কাজ ছিল ভারতের সীমান্ত এলাকায় সেনাবাহিনীর গতিবিধির ওপর নজর রাখা৷ সেই সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য সে তুলে দিত ওই পাক এজেন্সির হাতে৷ সেই তথ্যের ওপর ভিত্তি করেই জাল নোট পাচার ও অনুপ্রবেশের মত অপরাধ সংগঠিত হত বলে মনে করছে পুলিশ৷

আরও পড়ুন : পাকিস্তানিদের সম্পত্তি এবার ‘পাবলিক ইউজের’ সিদ্ধান্ত নিল ভারত সরকার

ধৃত নবাব খান রাজস্থানের জয়সলমীরের গঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা৷ গত বছর থেকেই পুলিশের নজরে ছিল নবাব৷ কারণ একটি চরবৃত্তির অপরাধের ঘটনার মূল অভিযুক্ত ছিল সে৷ তখন থেকেই নবাবের ওপর নজর ছিল পুলিশের৷ জানা গিয়েছে, এই নবাব খান বিশেষ সাংকেতিক ভাষায় পাকিস্তানের ওই এজেন্সিকে খবর পাঠাত৷ তাদের বার্তা আদানপ্রদান হত হোয়াটসঅ্যাপ বা ফোন কলের মাধ্যমে৷

জয়পুরে নিয়ে গিয়ে নবাব খানকে জেরা করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে৷ কীভাবে তারা যোগাযোগ করত, কার কার সাথে তার কথা হত, বা বিশেষ সাংকেতিক ভাষাতে কি তথ্য আদান প্রদান করা হয়েছে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

আরও পড়ুন : রাফায়েল থাকলে অন্তত ১২টি যুদ্ধবিমান হারাত পাকিস্তান: প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান

মঙ্গলবার রাজস্থান পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে গত বছরই পাকিস্তানে গিয়েছিল নবাব৷ তার বাবা ও মায়ের সঙ্গে তীর্থ করতে সেখানে যায় সে৷ সেই অবসরেই পাকিস্তানি ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ হয় তার৷ ওই এজেন্সি থেকেই চরবৃত্তির প্রশিক্ষণ নিয়ে এসেছিল নবাব৷