কিশোর শীল: আরব সাগর তীরে এক মায়ানগর৷ চলচ্চিত্র শিল্পের কারণে মুম্বইয়ের এই আরেক নাম৷ তবে ভারতের অর্থনৈতিক রাজধানী হিসেবে সুপরিচিত৷ এমনই নগরীকে ঘিরে দেশে ক্ষমতাসীন এনডিএ শিবির দৌদুল্যমান৷

মহারাষ্ট্রে নির্বাচনের ফল প্রকাশ পেয়েছে৷ পেরি ১৫ দিন অতিক্রান্ত। নির্বাচনী ফলাফলে ধাক্কা খেয়েছে বিজেপি। আসন কমেছে জোট শরিক শিবসেনার। ১২২ টি আসন থেকে ১০৫ টি আসনে এসে দাঁড়িয়েছে বিজেপির আসন। অন্যদিকে শিবসেনার ৭ টি আসন কমে দাঁড়িয়েছে ৫৬ তে। এই পরিস্থিতিতে সরকার গড়তে চেয়ে এনডিএ শিবির দ্বিধাবিভক্ত৷

অন্যদিকে প্রয়োজনীয় সংগঠন ও দলনেতা ছাড়াই মহারাষ্ট্রে দুই প্রবল পরাক্রান্ত শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করেছে কংগ্রেস। তাদের হাতে এসেছে কিছুটা সাফল্য।

কিন্তু ভোটের ফলাফল গুঁড়িয়ে দিয়েছে, বালাসাহেব ঠাকরের রাজনৈতিক উত্তরসূরি তথা সেনার উঠতি নক্ষত্র রাজ ঠাকরেকে। যে মারাঠি আবেগকে সম্বল করে বালাসাহেব মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক রাশ হাতে নিয়েছিলেন তারই উত্তরসূরি হন উদ্ভব ও রাজ৷ পরে শিবসেনার অভ্যন্তরেই চিড় ধরে৷ সেই সুবাদে মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনা তৈরি ও রাজ ঠাকরের উত্থান৷ আচমকা রাজনৈতিক সফলতার উচ্চতা ছুঁয়ে সর্বশেষ নির্বাচনে একেবারে হাঁড়ির হাল রাজের৷ মায়ানগরীর মায়াজালে বন্দি রাজ মগ্ন নিজেতেই৷

তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন অনেক। জ্বালাময়ী বক্তৃতা ও ভিডিও ক্লিপ দেখিয়ে অভিনব প্রচার নজর কাড়লেও শেষ পর্যন্ত মন ঘোরাতে পারেনি মারাঠিদের৷ ২০১৪-য় ১৩ টি আসন পেয়েছিল তাঁর দল মহারাষ্ট্র নব নির্মাণ সেনা। ২০১৯-এ মোট ১১০ টি আসনে প্রার্থী দিয়েছিল তাঁরা। কিন্তু নির্বাচনী ফলাফলে প্রশ্নের মুখে পড়ে গেল রাজ ঠাকরের কেরিয়ার। নির্বাচনে শেষ সলতের মতো ১ টি মাত্র আসন এসেছে তাঁর ঝুলিতে

এই নির্বাচনে বিজেপি-শিবসেনা জোটের বিরুদ্ধে বারবার সরব হয়েছিলেন রাজ ঠাকরে। আর ফল বলছে, ঠাকরে পরিবারের মূল স্রোতকেই বেশি সমর্থন মহারাষ্ট্রের৷ এর ফলে রাজনীতির ময়দানে ক্রমেই জমি হারিয়েছে এমএনএস৷ তাদের প্রাপ্তি ফলাফল মাত্র ১ টি আসন। ভোটে শতাংশের বিচারে মাত্র ২.৩৭% আসন পেয়েছে এমএনএস।

এমএনএসের এই হতশ্রী অবস্থার জন্য রাজনীতির ময়দানে খাদের কিনারায় এসে দাঁড়িয়েছেন দলনেতা রাজ ঠাকরে। এর ফলে রাজ সাহেবের রাজনীতিক জীবন কি শেষ, এমনই চর্চা চলছে মুম্বই তথা মায়ানগরীর রাজনৈতিক-চলচ্চিত্রের অলি-গলিতে৷

গুঞ্জন এই নির্বাচনে মহারাষ্ট্রের মানুষ বিজেপি ও শিবসেনা ধাক্কা খেয়ে শিক্ষা পেল৷ অশীতিপর শারদ পাওয়ারের রাজনৈতিক প্রজ্ঞা কাজে লাগিয়ে এনসিপি এগিয়েছে৷ সেই সুবাদে তাদের জোট শরিক কংগ্রেসও হাঁফ ছাড়ছে৷ কিন্তু রাজ ঠাকরের পরিস্থিতি, মহারাষ্ট্রের মানুষের মন পেতে যে তাঁকে আরও অনেকটা চরাই উৎরাই রাস্তা পার হতে হবে তাই যেন জানিয়ে দিলেন মারাঠিরা৷

সূত্রের খবর, আরব সাগরে ডুবুডুবু এমএনএসের ধাক্কায় নীরব রাজ মগ্ন ভোট পরবর্তী নিজের অবস্থানকে তুলে আনতে৷