স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বাংলা জয়ের স্বপ্নে বিভোর গেরুয়া ব্রিগেড৷ শাসক শিবির থেকে একে একে ভিড় জমছে বিজেপিতে৷ দলের শক্ত বৃদ্ধিতে বুঁদ রাজ্য বিজেপি নেতারা৷ এই অবস্থায় বাংলা থেকে দুর্নীতিবাজদের দূর করতে এনকাউন্টারের তত্ত্ব খাড়া করলেন রাজ্য বিজেপির দুই সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় ও সায়ন্তন বসু৷

আরও পড়ুন: ‘কাটামানি’র অভিযোগ এলে পুলিশকে পদক্ষেপের নির্দেশ নবান্নের

এক্ষেত্রে তাদের হাতিয়ার যোগী রাজ্য৷ গত বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তর প্রদেশে এনকাউন্টারে একাধিক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে৷ পুলিশ নিহতদের দুস্কৃতী বলে দাবি করেছে৷ তবে, তাদের মধ্যে বিরোধী দলের লোক ছিল বলেও খবর৷
মুরলীধর সেন লেনের নেতা সায়ন্তন বসু বাংলায় দুষ্কৃতীরাজ বন্ধ করতে সেই এনকাউন্টারেই ভরসা রাখছেন৷

আরও পড়ুন: ভাটপাড়া গুলিকাণ্ডে অভিযুক্ত পুলিশদের লোকসভায় কৈফিয়ৎ তলব করা হবে: অর্জুন সিং

বসিরহাটে তিনি বলেন, ‘‘কোনও দুষ্কৃতীকে রেয়াত করা হবে না। হয় গ্রেফতার করা হবে, নয়তো এনকাউন্টার করে মারা হবে। এ ছাড়া বিকল্প নেই। অপরাধ করে কোনও দুষ্কৃতীকে বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে না।’’

আরও পড়ুন: জেলা পরিষদ থাকবে তৃণমূলের হাতেই, দাবি অর্পিতা ঘোষের

বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ও পুলিশকে ‘এনকাউন্টার’-এর পরামর্শ দেন। তাঁর কথায়, ‘‘দুর্নীতিগ্রস্ত’ ও তোলাবাজ’দের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করুন। প্রয়োজনে এনকাউন্টার করুন।’’

আরও পড়ুন: পাত্রসায়রে ঘটনার প্রতিবাদে পুলিশ সুপারের অফিস ঘেরাও করল বিজেপি

বিজেপি নেতাদের এনকাউন্টারের তত্ত্ব ঘিরে জোর তরজা রৈজনৈতিক মহলে৷ তাহলে আবার ফিরো আসতে চলেছে সত্তরের দশক৷ অশান্ত বাংলায় কী শান্তির বদলে নৈরাজ্য সৃষ্টিই তাদের লক্ষ্য৷ প্রশ্ন তোলে রাজ্যের শাসক পক্ষ৷