স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সব জেলাতেই রয়েছে আস্ত একটা করে ‘কুমোরটুলি’। আলিপুরদুয়ারও তার ব্যতিক্রম নয়। এই শহরের হাটখোলায় চোখ রাখলেই দেখা যায় নতুন সাজে সেজে উঠছেন দুর্গা মা। মৃৎশিল্পীরা শেষ মুহূর্তের কাজে ব্যস্ত। পরীক্ষা এগিয়ে এলে যেমনটা হয় আরকি!

যত্নের সঙ্গে প্রতিমার গায়ে রং মাখতে শুরু করেছেন শিল্পীরা। এরপর শাড়ি পরানো হবে। আলিপুরদুয়ার হাটখোলায় রাস্তার দুধারে রয়েছে মৃৎশিল্পীদের সারি সারি দোকান। সেখানে চোখ রাখলেই দেখা যাচ্ছে দুর্গা মা-র সেজে ওঠার ছবি। কিন্তু, কয়েকদিন ধরে উত্তরবঙ্গের আকাশের মুখ ভার। বৃষ্টিতে কিছুটা হলেও বিপর্যস্ত জনজীবন। তার প্রভাব পড়েছে প্রতিমা বানানোর ক্ষেত্রে।

মাটি দিয়ে গড়ে তোলা প্রতিমা বৃষ্টির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে দাবি হাটখোলার মৃৎশিল্পীদের। শিল্পী নরেন্দ্র পাল kolkata24x7-কে বলেন, “অন্যান্য বারের তুলনায় এবার বৃষ্টির পরিমাণ একটু বেশি। এই সময় আমরা প্রতিমার গায়ে রং চরাই। বৃষ্টির কারণে আমাদের কাজের ক্ষতি হচ্ছে।” তিনি আরও বলেন, “পুজো আর বেশিদিন নেই। সময় মতো প্রতিমা তুলে দিতে হবে বিভিন্ন ক্লাব কর্তৃপক্ষের হাতে। সেই জন্য একটু চিন্তায় আছি। রোদ নেই। প্রতিমার গায়ের মাটি শুকোচ্ছে না। রাতদিন কাজ করেও সামলাতে পারছি না। জানা না শেষ পর্যন্ত কী হবে!”

শরৎকালে আকাশ হয়ে ওঠে মেঘ সাদা। কাশফুলের শুভ্র রং চারপাশকে করে তোলে ছবির মতো সুন্দর। কিন্তু, এবারের অকাল বর্ষায় চিন্তার ভাঁজ মৃৎশিল্পীদের কপালে। আকাশের মুখে কবে হাসি ফুটবে সে দিকেই তাকিয়ে আছে আলিপুরদুয়ারের মৃৎশিল্পীরা।